ডিএসও-র উদ্যোগে ক্ষুদিরাম বসুর ১১৩ তম আত্মবলিদান দিবস পালন

0
11

নিজস্ব সংবাদদাতা,পশ্চিম মেদিনীপুরঃ

ভারতবর্ষের স্বাধীনতা আন্দোলনের আপোষহীন ধারার বীর বিপ্লবী শহীদ ক্ষুদিরাম বসুর ১১৩ তম আত্মোৎসর্গ দিবসে এআইডিএসও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা কমিটির উদ্যোগে ক্ষুদিরামের জন্মস্থান হবিবপুরে শ্রদ্ধা নিবেদনের সংক্ষিপ্ত কর্মসূচি মঙ্গলবার পালন করা হয়।

dso | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

এছাড়াও জেলার খড়গপুর,বেলদা,দাঁতন,নারায়নগড়,সবং, পিংলা, ডেবরাতে শ্রদ্ধা নিবেদনের কর্মসূচি পালিত হয়।হবিবপুরের এই শ্রদ্ধা নিবেদনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির সম্পাদক মণিশঙ্কর পট্টনায়ক। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের জেলা সভাপতি বিশ্বরঞ্জন গিরি ও সম্পাদক ব্রতীন দাস। এছাড়াও সংগঠনের জেলা নেতৃবৃন্দ। শহীদ ক্ষুদিরাম বসুর আবক্ষ মূর্তিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক মণিশঙ্কর পট্টনায়ক ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। করোনা প্যান্ডেমিক পরিস্থিতির কারণে যথাসম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত সময়ের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

statue | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

মণিশঙ্কর পট্টনায়ক তার আলোচনাতে বলেন- আজকের দিনে যারা সমাজ প্রগতির আন্দোলনের সাথী হতে চাইবেন, এগোতে চাইবেন তাদেরকে ক্ষুদিরাম বসু সহ দেশ বিদেশের নবজাগরণ ও বিপ্লবী আন্দোলনের চরিত্র থেকে শিক্ষা নিতে হবে। তিনি বলেন “ক্ষুদিরাম বসু কেবলমাত্র একটি নাম নয়, তার ফাঁসির মঞ্চে আত্মাহুতি নিছক একটি আত্মত্যাগ নয়, ক্ষুদিরাম বসু একটি প্রতীক, বিপ্লবী প্রাণের প্রতীক।

আরও পড়ুনঃ ক্ষুদিরাম স্মৃতি বিজড়িত রানিবাঁধে শহীদ দিবস উদযাপন

আমাদের মতো বিপ্লবী ছাত্র সংগঠনের কাছে প্রেরণা। ক্ষুদিরাম বসুর আত্মদান পরাধীন ভারতবর্ষের সুপ্ত জাতির ঘুম ভাঙিয়ে ছিল। ব্রিটিশ শাসনের নাগপাশ থেকে মুক্তির স্বপ্ন দেখিয়ে ছিল। আজকের শাসকরা এই সমস্ত মহৎ চরিত্র গুলোকে ভুলিয়ে দেওয়ার নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বর্তমান ধনতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থার কারণেই সমাজ বিকাশের দ্বার আজ রুদ্ধ হয়ে রয়েছে। অনাহার, বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু, নারীর আর্তনাদ,বেকারত্ব, ছাঁটাই,সব মিলিয়েই ভারতবর্ষের আসল চিত্র।

ফলে ক্ষুদিরামের স্বপ্ন,সাধনা এখনও সফল হয়নি।এই ধনতান্ত্রিক ব্যবস্থা উচ্ছেদ করার সংগ্রামে যারা অংশগ্রহণ করবেন তাদেরকে সংগ্রামের একটা বিশেষ স্তর পর্যন্ত ক্ষুদিরাম বসু সহ নবজাগরণের মনীষী বিপ্লবীদের জীবন সংগ্রাম থেকে শিক্ষা নিতে হবে। এদের জীবন সংগ্রাম থেকে নেওয়া শিক্ষাই হবে আমাদের সংগ্রামের পাথেয়।”

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485