ভারতীয় সংস্কৃতি-আইন সমলিঙ্গে বিবাহকে সমর্থন করে না, আদালতে জানালো কেন্দ্র

0
31

নিজস্ব সংবাদদাতা, ওয়েব ডেস্কঃ

ভারতীয় সংস্কৃতি ও আইন কোনোটাই সমলিঙ্গ বিবাহের ধারণাকে সমর্থন করে না- আদালতে জানালো কেন্দ্র। একটি জনস্বার্থ মামলা হয়, ১৯৫৬ সালের হিন্দু বিবাহ আইনে সমলিঙ্গ বিবাহকে আইনি স্বীকৃতি দেওয়া হোক এই মর্মে কারণ ওই আইনে বলা আছে দুজন প্রাপ্তবয়স্ক হিন্দুর মধ্যে বিবাহ আইনসিদ্ধ, কোথাও বলা নেই হিন্দু নারী পুরুষ।

 Marriage | newsfront.co
প্রতীকী চিত্র

কেন্দ্রের তরফে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা আদালতে জানান আমাদের সংস্কৃতি ও আইন কোনটাতেই সমলিঙ্গ বিবাহের সংস্থান নেই। সুপ্রীম কোর্ট সমলিঙ্গের যৌনতাকে ডিক্রিমিনালাইজ করেছে মাত্র, তার থেকে বেশিও কিছু নয়, কম ও কিছু নয়।

আরও পড়ুনঃ কেন্দ্রের জানা নেই মহামারিতে কর্মচ্যুতির সংখ্যা!

আইন অনুযায়ী হিন্দু বিবাহ আইনে বিবাহ হয় একজন স্বামী ও একজন স্ত্রীর মধ্যে। সমলিঙ্গ বিবাহে এইভাবে স্বামী বা স্ত্রী নির্ধারণ করা সম্ভব নয় অতএব সে বিবাহ আইনসিদ্ধও নয়।

আরও পড়ুনঃ বাদল অধিবেশনের প্রথম দিনই বড়সড় উদ্বেগ, করোনা সংক্রমিত ২৫ সাংসদ

ভারতীয় আইনে স্ত্রী’র কিছু অতিরিক্ত সুরক্ষার ব্যবস্থা আছে যেমন ৪৯৮ ধারা, যেটি শুধুমাত্র বৈবাহিক সম্পর্কে স্ত্রী’র সুরক্ষার জন্য। সমলিঙ্গের বিবাহে এভাবে স্বামী বা স্ত্রী নির্বাচন সম্ভব নয় তাই সমলিঙ্গের বিবাহ আইনসিদ্ধ হওয়াও সম্ভব না।

এই ধরণের বিবাহের আইনি স্বীকৃতির ক্ষেত্রে আইনের এত কিছু পরিবর্তন প্রয়োজন যা আদালতের এক্তিয়ারে পড়ে না, কাজেই পুঙ্খানুপুঙ্খ বিচার করে এই ধরনের বিবাহ আইনত সম্ভব নয়, সলিসিটর জেনারেল তাঁর বক্তব্যে জানিয়েছেন।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here