নাদনঘাটে চাষিকে মারধর করার অভিযোগ উঠল ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে

0
39

শ্যামল রায়,কালনাঃ

Accusation of beating farmer against traders
ছবিঃ প্রতীকী

বুধবার চাষির কাছ থেকে কম দামে পেঁয়াজ কেনা কে কেন্দ্র করে গন্ডগোলের জেরে মারাত্মকভাবে জখম হলেন এক চাষি।ঘটনাটি ঘটেছে কালনা মহকুমার নাদনঘাট থানার মোষগড়িয়া গ্রামে। মারাত্মকভাবে জখম কৃষ্ণ দাস।সে কালনা মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।কৃষ্ণ দাসের কাকা তাপস দাস ও চিকিৎসাধীন হাসপাতালে।নাদনঘাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে যে অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত শুরু হয়েছে এবং অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ জোর তল্লাশি শুরু করে দিয়েছে।এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাষিদের মধ্যে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।
জানা গিয়েছে যে এদিন সকালে তাপস দাস নামে চাষি তার দেড় বিঘা জমিতে পেঁয়াজ চাষ হয়েছে। পেঁয়াজ বিক্রি করবে বলে স্থানীয় এক ব্যবসায়ী আরমান শেখ ১৪০ টাকা মন প্রতি দাম দেন। তারপর আরেক ব্যবসায়ী সাদ্দাম শেখ মন প্রতিদাম দেন ১৩০ টাকা।ঘটনাস্থলে থাকা কৃষ্ণদাস তখন সাদ্দাম সেককে বলে ‘তুমি ১৩০ টাকা দাম দিচ্ছো কেনো তাহলে দালালি করছ?’
সাদ্দাম শেখ কে দালাল বলায় উত্তেজিত হয়ে কৃষ্ণ দাস কে ব্যাপক মারধর করতে শুরু করে সে। তারপরে কৃষ্ণের কাকা তাপস দাস ও পার্বতী দাস ঘটনার প্রতিবাদে সরব হলে এদেরকেও ব্যাপক মারধর করে বলে অভিযোগ।সাদ্দাম সেখ তাদের দলবল নিয়ে মারধর করে কৃষ্ণ দাস , তাপস দাস ও পার্বতী দাসকে।

আরও পড়ুনঃ পুরসভার কর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠলো ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এবং এলাকার চাষিদের তরফ থেকে এই ধরনের পেঁয়াজ কেনাকে কেন্দ্র করে দামের হেরফের নিয়ে দালালি প্রথা বন্ধের দাবি ওঠে।নাদন ঘাট থানার পুলিশ জানিয়েছে বিষয়টি তদন্ত করে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here