কল‍্যাণীতে এইমসের হোর্ডিং-এ স্বস্তি

0
151

মেহেদি হাসান মোল্লা,কল্যানী:

দীর্ঘ চাপানউতরের পর অবশেষে এইমস্ হতে চলেছে কল্যানীতেই।কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যকে জানিয়েছিল এইমস্ তৈরির জন্য কেন্দ্রকে ১৫০ একর জমি দিতে হবে।রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রি মমতা ব্যানার্জী কেন্দ্রকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছিলেন যে রাজ্য ১৫০ একর জমি দিতে প্রস্তুত।আর এর জন্য বিধানচন্দ্রের সখের শহর কল্যানীতেই জমির ব্যাবস্থা করেছে রাজ্য।

এইমস্ তৈরি করা ছিল বাংলার দীর্ঘ দিনের দাবি।২০০৯ সালে ইউ.পি.এ সরকার ৮২৩ কোটি টাকার বরাদ্দে রায়গঞ্জে এইমস্ এর ধাঁচে হাসপাতাল তৈরির কথা বলে।কিন্তু জমি নিয়ে বাধে জটিলতা।ক্ষমতায় আসার পর মমতা জানায় রায়গঞ্জে এইমস্ তৈরি নিয়ে তাঁর কোন আপত্তি নেই কিন্তু কোন অবস্থায় দরিদ্র কৃষক দের থেকে জোর করে জমি নিতে পারবে না তার সরকার কিন্তু কল্যানীতে পর্যাপ্ত জমি আছে সরকারে হাতে।এই নিয়ে তৎকালিন রায়গঞ্জের কংগ্রেস সাংসদ তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রি দীপা দাস মুন্সির সাথে মুখ্যমন্ত্রির সংঘাত চরমে উঠেছিল।অবশেষে নদিয়ার কল্যানীতেই এইমস্ তৈরির ছাড়পত্র দেয় কেন্দ্রীয় সরকার।এরজেরে এইমস্ তৈরি নিয়ে দীর্ঘদিনের অনিশ্চয়তাও কাটে। তবুও অনেকে হয়ত বিশ্বাস করতে পারেনি যে এইমস্ হাসপাতাল আদউ হবে কিনা।কিন্তু সাম্প্রতিক নির্ধারিত জায়গার উপর বড় হোডিং এ লেখা ‘অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্স,কল্যানী’ দেখেই আর হয়ত সন্দেহের অবকাশ থাকবেনা।

সেই হোর্ডিং

এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।পার্শ্ববর্তী সাধারণ মানুষ জানায় যে এইমস এর মতো একটি উন্নতমানের চিকিৎসা ব্যবস্থা বাংলায় তৈরি হওয়াটা সত্যই গর্বের বিষয়।এটি তৈরি হওয়ায় বাংলার মানুষকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভিন রাজ্যে আর যেতে হবেনা।এককথায় স্বাস্থ্যব্যবস্থার মান ক্রমশ উন্নতির পথে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here