করোনাকে পরাস্ত করে বিয়ারে চুমুক দিয়ে বিজয় উদযাপন বৃদ্ধার

0
37

মোহনা বিশ্বাস, ওয়েব ডেস্কঃ

করোনা অতিমারিতে ত্রস্ত গোটা বিশ্ব। আক্রান্তের সংখ্যাটা দিন দিন বেড়েই চলেছে। সঙ্গে অবশ্য বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। বিশ্বে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন বয়স্ক মানুষরা। তাঁদের কারোর বয়স একশ আবার কারোর বয়স তারও বেশি। এনাদের মধ্যে সুস্থও হয়ে উঠছেন অনেকেই। সেই সব খবর দ্রুত ভাইরাল হতেও দেখা গিয়েছে সংবাদমাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে করোনামুক্ত হওয়ার পর কোনো বৃদ্ধ বা বৃদ্ধাকে কি দেখেছেন নার্সিংহোমের বেডে শুয়ে বিয়ার খেতে? হ্যাঁ, এবার ঘটল এরকমই এক বিস্ময়কর ঘটনা।

old man | newsfront.co
বিজয় উদযাপন। ছবিঃ টুইটার

ম্যাসাচুসেটসের জেনি স্টেনা। বয়স ১০৩ বছর। কিছুদিন আগে অসুস্থ হয়ে নার্সিংহোমে ভর্তি হন এই বৃদ্ধা। এরপর চিকিৎসকরা জানান যে, ১০৩ বছরের ওই বৃদ্ধার শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পরেছে। লালারস পরীক্ষা পর তাঁর করোনা রিপোর্ট আসে পজিটিভ। জেনি তখন কোভিড-১৯ কী তা বুঝতেই পারেননি। তারপর তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়। করোনার সঙ্গে লড়াই করে তিন সপ্তাহের মধ্যেই সুস্থ হয়ে ওঠেন জেনি। জেনি যে নার্সিংহোমে ছিলেন সেখানে আরও ৩৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হন। তাঁদের চিকিৎসা চলছে।

জেনিই প্রথম, যিনি এই নার্সিংহোম থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেন। এত বয়স্ক একজন করোনা রোগীকে এত তাড়াতাড়ি সুস্থ করতে পেরে খুশি চিকিৎসক সহ নার্সিংহোমের কর্মীরাও। এমনও একটা সময় এসেছিল যখন জেনির শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছিল এবং জেনিকে শেষ দেখা দেখে যাওয়ার জন্য তাঁর পরিবারের লোককে নার্সিংহোমে ডাকা হয়েছিল। কিন্তু করোনাকে হারিয়ে সবাইকে অবাক করে আবার সুস্থ হয়ে ওঠেন ওই বৃদ্ধা। ১৩ মে নার্সিংহোমের তরফে ঘোষণা করা হয় জেনি করোনামুক্ত।

আরও পড়ুনঃ আমেরিকায় ভয়াবহ আকার নিচ্ছে করোনা, তিনমাসে মৃত ১ লক্ষের বেশি মানুষ

জেনির সুস্থ হয়ে ওঠার আনন্দ উদযাপন করেন নার্সিংহোমের কর্মীরা। করোনা জয়ী জেনি কী খেতে চান, জানতে চাওয়া হলে নার্সিংহোম কর্মীদের জেনি বলেন, তাঁর প্রিয় বিয়ার এনে দিতে। জেনির কথা মতো নার্সিংহোমের কর্মীরা এক বোতল ঠান্ডা বিয়ার এনে দেন। নিজেই সশব্দে বিয়ারের বোতল খুলে চুমুক দেন নার্সিংহোমের বেডে শুয়ে থাকা ১০৩ বছরের জেনি। আর ওই বৃদ্ধার বিয়ার খাওয়ার এই মুহূর্তটি ক্যামেরাবন্দি হয়ে যায়। এরপর সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল না হয়ে কি উপায় আছে? এই ছবি সবসময় দেখা যায় না যে। বিরল এই ছবিটি তাই দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায় সর্বত্র।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485