‘বিচারব্যবস্থার ওপর সরাসরি আক্রমণ’, ঝাড়খণ্ডের বিচারক হত্যায় বললেন বিচারপতি চন্দ্রচুড়

0
22

নিজস্ব প্রতিবেদন, নিউজ ফ্রন্টঃ

ঝাড়খণ্ডের বিচারপতি হত্যা তদণ্ডে এলো নয়া মোড়। প্রথমে দুর্ঘটনা বলে মনে হলেও, সিসিটিভি ফুটেজ থেকে তদন্তকারীরা মনে করছেন এটি একটি খুনের ঘটনা। ঘটনায় সুপ্রীম কোর্টও ক্ষোভ উগরে দিয়েছে, বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচুড় এই ঘটনাকে সরাসরি বিচারবিভাগের ওপর আক্রমণ বলেই ব্যাখ্যা করেছেন।

Jharkhand Judge murder CCTV footage
সৌজন্যেঃ এনডিটিভি

ডিস্ট্রিক্ট জাজ উত্তম আনন্দ প্রাত:ভ্রমণে বেরোনোর কিছু সময় পরেই একটি ‘অজ্ঞাত পরিচয়’ গাড়ির ধাক্কায় আহত হন। ঘটনাটি ঘটে ধানবাদে তাঁর বাড়ির ৫০০ মিটারের মধ্যেই। নির্দিষ্ট সময় মত তিনি বাড়ি না ফেরায় বিচারপতি আনন্দের পরিবার স্থানীয় থানায় যোগাযোগ করেন। এরপর পুলিশ তদন্তে নামে ও বিচারপতি আনন্দের দেহ উদ্ধার করে। হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। সেই সময় এটি দুর্ঘটনা বলে মনে করলেও একটি সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়ার পরেই ঘুরে গেল তদন্তের মোড়।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ নিশ্চিত হয় যে এটি আদৌ দুর্ঘটনা নয়, দুর্ঘটনার চেহারা দিয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে খুন করা হয়েছে ওই বিচারপতিকে। জানা গিয়েছে ঝাড়খণ্ডের কিছু কুখ্যাত মাফিয়া সম্পর্কিত স্পর্শকাতর বেশ কয়েকটি মামলা দেখছিলেন বিচারপতি উত্তম আনন্দ। তার জেরেই এই ঘটনা বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে।

আইজি অমল বিনুকান্ত হোমকর জানিয়েছেন ঘটনায় লাখান কুমার ভার্মা ও রাহুল ভার্মা নামে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, ঘাতক অটোটি উদ্ধার করা হয়েছে এবং ধৃতরা তাদের অপরাধ স্বীকারও করেছে। অন্যদিকে অটো চালকের স্ত্রী রিঙ্কি দেবী জানিয়েছেন, তাঁর স্বামী বলেছিলেন যে তিনি লটারিতে ৮০০০০ টাকা জিতেছেন ওই টাকা দিয়ে তিনি নিজের অটো এবং একটি মোবাইল ফোন কিনতে চান।

আরও পড়ুনঃ নতুন সড়কপথ, ফ্লাইওভার ও থ্রি টায়ার যাতায়াত ব্যবস্থার দাবি নিয়ে নীতিন গড়করির সাথে বৈঠক মমতার

মৃত বিচারপতির পরিবারের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে যে পুলিশ দেরিতে পৌঁছয় ঘটনাস্থলে এবং পুলিশের তৎপরতার অভাবেই মৃত্যু হয়েছে বিচারপতি উত্তম আনন্দের। ঝাড়খন্ড হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি রবি রঞ্জন ও তদন্তে খুশি নন, এফআইআর দায়ের করতে কেন এত দেরি হয়েছে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। প্রধান বিচারপতি এও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রয়োজনে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেবেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ ‘মেয়েরা রাতে কেন সমুদ্র সৈকতে ঘোরে?’ নাবালিকা ধর্ষণের ঘটনায় বক্তব্য গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীর

সুপ্রীম কোর্টের বার অ্যাসোসিয়েশন বিষয়টি নিয়ে দেশের প্রধান বিচারপতি এনভি রামান্নার দৃষ্টি আকর্ষণ করে। প্রধান বিচারপতি জানিয়েছেন যে তিনি এই ঘটনা নিয়ে ঝাড়খন্ড হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির সঙ্গেও কথা বলেছেন। “হাইকোর্টে মামলাটি রয়েছে এবং প্রধান বিচারপতি বিশেষ নজর রেখেছেন। আমরাও এই মামলার দিকে লক্ষ্য রেখেছি।” বিচারপতি চন্দ্রচুড়ের বক্তব্য অনুযায়ী এই ঘটনা সরাসরি বিচার ব্যবস্থার ওপর আক্রমণ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here