বিজেপি কর্মীর কন্যাকে অপহরণের অভিযোগে বিধায়কের গাড়িতে হামলা

0
126

পিয়ালী দাস,বীরভূমঃ

বিজেপি নেতার অপহৃত কন্যাকে উদ্ধারের দাবিতে বিক্ষোভের আঁচ ছড়াচ্ছে লাভপুরের বাইরেও। আজ সকাল থেকে অঘোষিত বনধের চেহারা লাভপুরের পাশাপাশি কীর্ণাহারেও। বিভিন্ন রাস্তায় চলছে টায়ার জ্বালিয়ে প্রতিবাদ।

bjp daughter kidnap
সন্ধান চেয়ে পুলিশের বিজ্ঞপ্তি।নিজস্ব চিত্র

অভিযোগ,বৃহস্পতিবার রাত ৮ টা নাগাদ তিন দুষ্কৃতী মোটরবাইকে করে স্থানীয় বিজেপি নেতা সুপ্রভাত বটব্যালের বাড়িতে এসে পরিবারের লোকের কপালে পিস্তল ঠেকিয়ে তাঁর মেয়েকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। চিৎকার শুনে ছুটে আসেন আশেপাশের বাসিন্দারা।কিন্তু ততক্ষণে চম্পট দিয়েছে তারা। ঘটনার প্রতিবাদে এরপরেই শুরু হয় বিক্ষোভ। লাভপুর-কাটোয়া রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে শুরু হয় অবরোধ।পরে রাস্তার উপর টায়ার জ্বালিয়ে শুরু হয় প্রতিবাদ বিক্ষোভ।ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে পুলিশকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখানো হয়। পুলিশের গাড়িও ভাঙচুর করা হয়।
সুপ্রভাতবাবু দাবি করেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বশেই এই কাণ্ড ঘটিয়েছে তৃণমুল।তবে তৃণমূলের পক্ষ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়।তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেন,“এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগ নেই। পুরোটাই সাজানো।প্রচার পাওয়ার জন্যই মিথ্যে অপবাদ দেওয়া হচ্ছে।”

bjp daughter kidnap
বিধায়কের আক্রান্ত গাড়ি।নিজস্ব চিত্র

তবে ঘটনার পর প্রায় ৪০ ঘণ্টা কেটে গেলেও এখনও অপহৃত তরুণীর কোনও খোঁজ না মেলায় বিক্ষোভের আঁচ বাড়ছে।আজ লাভপুরের পাশাপাশি বিক্ষোভ শুরু হয়েছে লাগোয়া কীর্ণাহার, আবাডাঙা,বিপ্রটিকুড়িতেও। কার্যত বনধের চেহারা গোটা এলাকায়।বন্ধ রয়েছে দোকানপাট।যানবাহন চলাচল।বাসিন্দাদের বক্তব্য, সন্ধে বেলায় বাড়িতে ঢুকে ঘরের মেয়েকে তুলে নিয়ে গেল দুষ্কৃতীরা।এ ধরণের ঘটনা তাঁদের পরিবারেও ঘটতে পারে।পুলিশের বিরুদ্ধে জমাট বেঁধেছে ক্ষোভ।এদিকে বিকেলে লাভপুরের বিধায়ক মনিরুল ইসলাম অপহৃত মেয়েটির পরিবারের সাথে দেখা করতে যাচ্ছিলেন তখন আচমকাই বিজেপির বেশ কিছু কর্মী সমর্থক লাঠি বাঁশ নিয়ে হামলা চালায়,ভেঙে দেওয়া হয় গাড়ির কাঁচ,ইট মারা বৃষ্টি করা হয় বিধায়কের ওপর।অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচেন।সেখান থেকে কোনক্রমে লাভপুর থানায় আশ্রয় নেন বিধায়ক মনিরুল ইসলাম।উত্তেজিত বিজেপি সর্মথকরা এরপর লাভপুর থানায় এসে আক্রমন করে , কিন্তু এবার লাভপুর থানার পুলিশ পিছু না হটে তেড়ে গিয়ে লাঠি উচিয়ে গেলে পুলিশকে লক্ষ করে ইট ছোঁড়ে জনতা,জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠি চার্জ করে পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তির পচাগলা দেহ উদ্ধার

পালতে গিয়ে পুলিশের হাতে তিনজন বিক্ষোভকারী ধরা পরে যায়,তাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ।বীরভূম জেলার পুলিশ সুপার শ্যাম সিং জানান মেয়েটির খোঁজ চলছে।পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রনে আছে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485