স্কুলে ঢুকে শিক্ষকদের মারধোর, অভিযুক্ত প্রাক্তন বিজেপি নেতা

0
21

মোহনা বিশ্বাস, হুগলীঃ

বুধবার আচমকাই হুগলীর পোলবায় বীরেন্দ্রনগর হাইস্কুলে শিক্ষকদের উপর চড়াও হয় একদল দুষ্কৃতি। পরীক্ষা চলাকালীন স্কুলে ঢুকে শিক্ষকদের মারধোর করে তারা। প্রধান শিক্ষককে উদ্দেশ্য করে গালিগালাজও করে ওই দুষ্কৃতিরা। স্কুলে শিক্ষকরা সঠিক সময়ে আসেন না বলে অভিযোগ দুষ্কৃতিদের। তাদের অভিযোগ এই স্কুলের শিক্ষকরা কোনো নিয়ম মানেন না।

প্রধান শিক্ষক সব্যসাচী সেনগুপ্ত এই অভিযোগ অস্বীকার করলে দুষ্কৃতিরা তাকে মারধোর করে। তখন অন্যান্য শিক্ষকরা সব্যসাচী বাবুকে বাঁচানোর চেষ্টা করেন। আর আরও কয়েকজন শিক্ষক গোটা ঘটনাটি মোবাইলে ক্যামেরাবন্দি করতে গেলে ওই শিক্ষকদের উপর চড়াও হয় দুষ্কৃতিরা। দুজন শিক্ষকের মোবাইল ছিনিয়ে নেয় তারা। একজন শিক্ষককে মাটিতে ফেলে মারধোর করে এবং তার প্যান্টের পকেট ছিঁড়ে মোবাইল বের করে নেয় দুষ্কৃতিরা।

আক্রান্ত।নিজস্ব চিত্র

ঘটনাটি স্থানীয় থানায় জানান স্কুলের প্রধান শিক্ষক। এরপর গুরুতর আহত অবস্থায় পোলবা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয় আক্রান্ত শিক্ষকদের। বীরেন্দ্রনগর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক সব্যসাচী সেনগুপ্ত বলেন, এর আগেও বেশ কয়েকবার স্কুলে চড়াও হয়ে শিক্ষকদের উপর আক্রমণ করেছে ওই দুষ্কৃতিরা। স্কুলের সমস্ত শিক্ষকরা নিয়ম মেনেই চলেন। তবুও ঠিক কি কারণে এই ঘটনা ঘটছে তা জানা নেই তাদের। তিনি আরও বলেন যে, বিজেপির প্রাক্তন মন্ডল সভাপতি কৌশিক জানার নেতৃত্বেই শিক্ষকদের উপর চড়াও হয় দুষ্কৃতিরা। তাঁর সাথে ছিল স্কুলের কিছু প্রাক্তন ছাত্রও। পুলিশে না জানানোর কথা বলে প্রধান শিক্ষককে হুমকিও দেন তারা।

এই স্কুলের শিক্ষকরা নিরাপত্তার অভাব বোধ করছেন। শিক্ষকদের নিরাপত্তার জন্য কমিটিকে জানাবেন এবং এর জন্য যা কিছু করা প্রয়োজন তাই করবেন বলে জানান সব্যসাচী বাবু। এই ঘটনার পর আতঙ্কে আছেন এই স্কুলের শিক্ষকরা। পরে আবারও তাদের উপর হামলা হতে পারে বলে আশঙ্কা শিক্ষকদের। এই ঘটনার জেরে দুশ্চিন্তায় রয়েছে বীরেন্দ্রনগর হাইস্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরাও।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে হুগলী জেলার সেচ কর্মাধ্যক্ষ মনোজ চক্রবর্তী বলেন, বিনা কারণে বারে বারে শিক্ষাক্ষেত্রে এই ধরনের হামলা অত্যন্ত নিন্দনীয়। শিক্ষকরা ঘটনাটি থানায় জানালে দুষ্কৃতিদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অন্যদিকে বিজেপি নেতা সত্যজিৎ সরকার বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপির কোনো যোগাযোগ নেই। বিভিন্ন অনৈতিক কাজকর্মের কারণে গত ছয় মাস আগে কৌশিক জানা-কে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শিক্ষকদের উপর এইধরনের হামলা খুবই নিন্দনীয়। এই ঘটনাকে বিজেপি প্রশ্রয় দেয় না।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485