ব্যলট বাক্স ছিনতাই অভিযোগের তীর বিজেপি’র দিকে

0
49

পিয়ালী দাস,বীরভূমঃ তৃনমুলের অভিযোগ সত্য করে বিজেপির গুণ্ডামি অব্যাহত। পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ব্যালট বাক্স ছিনতাই ও ভাঙচুরের অভিযোগ উঠল বিজেপির প্রার্থী ও প্রমিলা বাহিনীর বিরুদ্ধে। ঘটনায় আহত হন তৃনমুল কংগ্রেস প্রার্থী সহ বেশ কয়েকজন। ঘটনার পর ওই বুথে পুননির্বাচনের দাবী তুলল শাসক দল তৃনমুল কংগ্রেস। ঘটনা বীরভূম জেলার মহম্মদ বাজার থানার কুলিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে বিজেপির প্রার্থী সহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। আজ সকাল দশটা নাগাদ পুলিশকে হতবাক করে এক দল মহিলা, যারা সকলেই বিজেপির সমর্থক বলে অভিযোগ, তারা কুলিয়া পঞ্চায়েতের ১৮নম্বর বুথে এসে হাজির হন। প্রাথমিক ভাবে তাদের ভোটার বলে মনে হলেও হটাত করে তারা বুথে ঢুকে ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন যে ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে বাইরে এসে সেই বাক্স ভেঙ্গে সব ব্যালট ছড়িয়ে দেয়। ওই বুথে ৭১৮ জন ভোটার ছিলেন, তার মধ্যে সেই সময় পর্যন্ত ২০০জন ভোটার তাদের ভোট দিতে পেরেছিলেন। ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃনমুল কংগ্রেস প্রার্থী টুম্পা বাগদী অভিযোগ করেন, “এখানের বিজেপি প্রার্থী ঝুম্পা বাগদির নেতৃত্বে একদল মহিলা হটাত করে ভোট কেন্দ্রে ঢোকে। প্রথমে ভেবেছিলাম ওরা ভোট দিতে এসেছে। কিন্তু ওরা ব্যালট বাক্স ভেঙ্গে – ব্যালট ছড়িয়ে দেয়। বাধা দিতে গেলে মাকে মেরে আমার কাপড়, ব্লাউজ ছিড়ে দেয়। গলার হার ছিনতাই করে নেই”। ওই গ্রামের পঞ্চায়েত সমিতির জয়ী প্রার্থী শম্পা মাহারাও আক্রান্ত হয়েছেন। ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে তার শাড়িও। ঘটনার সময় কার্যত নির্বাক হয়েছিল পুলিশ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্তা জানালেন, “আমরা হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম। সবাই মহিলা। প্রতিরোধ করব সেই অবস্থা ছিল না। আমাদের সঙ্গে সেই সময় কোন মহিলা পুলিশ ছিল না। আমাদের দাঁড়িয়ে দেখা ছাড়া কোন উপায় ছিল না”। এই ঘটনার খবর পেয়েই ছুটে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী। ওই কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ঝুম্পা বাগদী সহ তিন জন কে আটক করেছে পুলিশ। বিজেপি প্রার্থী ঝুম্পা বাগদীর অভিযোগ, “ওরা [তৃনমুল] ছাপ্পা দিচ্ছিল। আমরা প্রতিরোধ গড়ে তুলি”। এই বুথে পুননির্বাচনের দাবী তুলেছে শাসক দল তৃনমুল কংগ্রেস। ওই এলাকার বিধায়ক নীলাবতী সাহা বলেন, “বিজেপি হারবে জেনেই সন্ত্রাস করেছে। ব্যালট লুট, ভাঙচুর করেছে। এই ঘটনার পর পুননির্বাচনের দাবী জানিয়েছি আমরা”।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485