কান্দিতে বিজেপি কর্মীর উপর হামলার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে

0
12

তৌসিফ ইকবাল, মুর্শিদাবাদঃ

মুর্শিদাবাদের কান্দি থানার অন্তর্গত গোবরহাটি গ্রামের বিজেপি বুথ সভাপতির ভাই রামকৃষ্ণ হাজরাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারধরের অভিযোগ উঠল কান্দি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কলুলি রাজবংশী ও তার স্বামী দিবাকর রাজবংশীর বিরুদ্ধে।

BJP member
আক্রান্ত বিজেপি কর্মী। নিজস্ব চিত্র

আক্রান্তের পরিবার জানিয়েছেন, শুক্রবার রাত্রে বিজেপি কর্মী রামকৃষ্ণ হাজরার বাড়িতে কান্দি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কাকলি রাজবংশীর স্বামী দিবাকর রাজবংশীর নেতৃত্বে তৃণমূলের কয়েক জন দুষ্কৃতী রামকৃষ্ণ হাজরার বাড়িতে গিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং ভাঙচুর চালায়। যার প্রতিবাদ করায় রামকৃষ্ণ হাজরার পায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে ওই তৃণমূল কর্মীরা, এমনই অভিযোগ উঠেছে। এলাকার বুথ সভাপতি তথা আক্রান্তের দাদা সুদীপ হাজরার দাবি, তারা যেহেতু বিজেপি করে তার জন্যই তাদের উপর হামলা চালায় তৃণমূলের হার্মাদ বাহিনি।

BJP worker
বিজেপি কর্মীর স্ত্রী। নিজস্ব চিত্র

আক্রান্ত রামকৃষ্ণ হাজরার স্ত্রী তাপসি হাজরা তার স্বামীর ওপর এমন হামলার ন্যায্য বিচারের আশায় কান্দি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। বর্তমানে আক্রান্ত রামকৃষ্ণ হাজরা কান্দি মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ইতিমধ্যেই কান্দি থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

আরও পড়ুনঃ ভবানীপুর উপ নির্বাচন হবে নতুন ইভিএমে, শুরু হচ্ছে পরীক্ষা

Apurba sarkar
অপূর্ব সরকার, বিধায়ক। নিজস্ব চিত্র

তবে ঘটনার পর কান্দি বিধানসভা কেন্দ্রের শাসক দলের বিধায়ক অপূর্ব সরকার পাল্টা দাবি করেন, বিজেপি কর্মী রামকৃষ্ণ হাজরা মদ্যপ অবস্থায় কান্দি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কাকলি রাজবংশীর স্বামী দিবাকর রাজবংশীকে ধাক্কাধাক্কি করে এবং নিজেদের মধ্যে ইট ছোঁড়াছুঁড়ি করে। আর তাতেই জখম হন বিজেপি কর্মী রামকৃষ্ণ হাজরা। সম্পূর্ন উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তৃণমূলের নামে দোষ চাপাচ্ছে বিজেপি, এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল কোনোভাবেই জড়িত নয় বলে দাবি করেন বিধায়ক অপূর্ব সরকার।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here