স্কুল খুললেও হাজিরা বাধ্যতামূলক নয়, বাবা-মা চাইলে পাঠাবেন, জানালেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী

0
62

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতাঃ

স্কুল খুললেও অগ্রাধিকার পাবে পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যই, এমনটাই জানালেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। আর মাত্র চারদিন, ১৬ নভেম্বর মঙ্গলবার থেকে রাজ্যে খুলতে চলেছে স্কুল কলেজ। যদিও আপাতত নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে শুরু হবে পঠনপাঠন। তবে পড়ুয়ারা যদি আতঙ্কে ক্লাসে আসতে না চায় তাহলে স্কুলে হাজিরার কী হবে! এই বিষয়ে আজ রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানান, ‘‌ছাত্রছাত্রীদের স্কুলে আসা বাধ্যতামূলক নয়, বাবা-মা চাইলে তবেই তাদের স্কুলে পাঠাবেন। তবে আমরা চাই জনজীবনের মূলস্রোতে ফিরে আসুক বাচ্চারা।’‌

Class room
নিজস্ব চিত্র

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ২০ মাস পর খুলতে চলেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। রাজ্যের জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আপাতত সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টে পর্যন্ত নবম ও একাদশ শ্রেণি এবং সাড়ে ১০টা থেকে বিকেল ৪টে পর্যন্ত দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হবে। সেইমত স্কুলে স্কুলে শুরু হয়েছে স্যানিটাইজেশনের কাজ, রাখা হচ্ছে মাস্কও।

প্রসঙ্গত, স্কুল খোলা নিয়ে আজ রাজ্যের সিদ্ধান্তকে মান্যতা দিয়েছে হাইকোর্টও। এদিন স্কুল খোলা নিয়ে জনস্বার্থ মামলায় হাইকোর্ট জানিয়েছে, আপাতত এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে নারাজ আদালত। তবে কোভিড বিধি মেনেই করতে হবে ক্লাস।

আরও পড়ুনঃ ফের বাড়ছে মেট্রোর সংখ্যা, পড়ুয়াদের সুবিধার্থে চলবে সকাল ৭ টা থেকে

আদালতে রাজ্য জানিয়েছে, অনলাইন ক্লাসে পড়ুয়াদের মানসিক স্বাস্থ্য ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। স্কুল খুললে তা কিছুটা ছন্দে ফেরার আশা করা যায়। তাছাড়া কোভিড বিধি মেনেই চলবে ক্লাস। প্রতিদিন ১০ মিনিট করে ছাত্রছাত্রীদের কোভিড সচেতনবার্তা দেওয়া হবে। তাছাড়া ক্লাস চালু হওয়ার পর অভিভাবকদের কোনো সমস্যা হলে অবশ্যই আদালতে আসতে পারেন তারা।

আরও পড়ুনঃ ১৬ নভেম্বর স্কুল খোলা নিয়ে কাটল আইনি জট, রাজ্যের সিদ্ধান্তেই সায় হাইকোর্টের

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here