কংগ্রেস কোনভাবেই সেলিমের হয়ে লড়বে না

0
244

তপন চক্রবর্তী,উত্তর দিনাজপুরঃ

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস-বাম জোট হলেও তা প্ৰকৃত অর্থে কোন কাজেই লাগবেনা।উত্তর দিনাজপুর জেলা কংগ্রেস সভাপতি তথা রায়গঞ্জের বিধায়ক মোহিত সেনগুপ্ত পরিষ্কার ভাবেই সাংবাদিকদের জানিয়ে দিয়েছেন কংগ্রেস প্রার্থী দীপা দাসমুন্সি যেখানে প্রার্থী নেই সেখানে কংগ্রেসের ভোট বামেদের ঝুলিতে একটিও যাবেনা।

Congress never fight for Selim
সাংবাদিক সম্মেলনে মোহিত সেনগুপ্ত,বিধায়ক।নিজস্ব চিত্র

কারন হিসাবে বলে দিয়েছেন মহিতবাবু ২০১৪ সালে দীপাকে সেলিম হারিয়েছিল মাত্র ১৬০০ শো ভোটে।সেলিম কাগজপত্রে পোস্টাল ভোটে জিতেছিলেন মাত্র।আসলে রায়গঞ্জ লোকসভা আসনটি প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সির স্মৃতির সাথে যুক্ত আছে যা চীর দিন থাকবে।প্রিয়দা না থাকলেও তিনি রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের মানুষের অন্তরে আছেন।২০১৬র বিধানসভা নির্বাচনে পাশাপাশি হাঁটতে দেখা গিয়েছিল দুজনকেই। কংগ্রেস প্রার্থী মোহিত সেনগুপ্তের হয়ে প্রচার করতেও দেখা গিয়েছিল সিপিএমের সাংসদ মহঃ সেলিমকে। কিন্তু সেই জোটেই এখন জটের ছায়া। রাজ্য স্তরে আসন সমঝোতা নিয়ে আলোচনা চললেও জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোহিত সেনগুপ্ত কিন্তু পরিষ্কার ভাষায় সিপিএমের হয়ে প্রচারে অংশ নেবেননা বলে জানিয়ে দিলেন। তাহলে কাকে সমর্থন করবে জেলা কংগ্রেস নেতৃত্ব? এক্ষেত্রে সুকৌশলে প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে গেলেন জেলা কংগ্রেস সভাপতি।

বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের জেলা কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে জানান, বহুদিন ধরে কংগ্রেসের শক্ত ঘাটি রায়গঞ্জ লোকসভা৷ এই কেন্দ্রে কংগ্রেসের প্রার্থী চেয়েছিলো কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা। কিন্তু এই আসনটি একতরফা ভাবে সিপিআইএমকে দিয়ে দেওয়া হলো। আবার মহঃ সেলিম একাই প্রচারে বের হয়ে গেলেন। মোহিতবাবু আরো বলেন, পাশাপাশি কংগ্রেসকে বিভিন্ম জায়গায় ‘ক্ষয়িষ্ণু’ বলে বেড়াচ্ছেন মহঃ সেলিম। তাই এজেলার কংগ্রেস কর্মীরা এবারের ভোটে চুপ করে বসে থাকবে আর তামাশা দেখবে বলে জানান তিনি।

তিনি সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেন সিপিএম ও তৃণমুল কাউকেই ভোট না দিয়ে সঠিক জায়গায় ভোট দিতে। যাতে ফলাফলের পর সেলিম বুঝতে পারেন এজেলায় কংগ্রেসের অবস্থানটা কি? উল্লখ্য, রায়গঞ্জ লোকসভা আসনে প্রিয় পত্নী দীপা দাসমুন্সীকে প্রার্থী চেয়ে রাজ্য পার্টির কাছে আবেদন করেছিলেন কংগ্রেসের জেলা সভাপতি মোহিত সেনগুপ্ত। কিন্তু গত লোকসভা নির্বাচনে বিজয়ী আসন ছাড়তে নারাজ বাম নেতৃত্ব। রায়গঞ্জ আসনে মহঃ সেলিমের প্রচার শুরু হতেই তাই জটে জেরবার বাম-কংগ্রেসের জোট।

পাশাপাশি মহাঃ সেলিম এই কথার প্রেক্ষিতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে জানিয়েছেন, নিচু তলার কংগ্রেস কর্মীরা ইতিমধ্যেই আমাদের সাথে প্রচারে আসতে চেয়েছেন। আমরা কোনো দলের অনুশাষনকে ভাঙ্গতে চাই না। ওদের দল কংগ্রেস সিদ্ধান্ত নিক। আমরা জানি দেশকে বাঁচাতে।

আরও পড়ুনঃ গ্রাম থেকেই প্রচার শুরু সেলিমের

বিজেপিকে রুখতে হবে, রাজ্য বাঁচাতে তৃণমুলকেও রুখতে হবে৷ তাই এই দুই শক্তিকে রুখতে নিজের বুথ বাঁচানোর লড়াইয়ে যারা আছেন তারাই আমাদের সাথে থাকবে। কিন্তু বাম-তৃণমূল কোনোটাতেই ভোট না দিলে কোন দিকে যেতে চলেছে কংগ্রেস কর্মীদের ভোট? রাজনৈতিক মহলের মতে জেলা কংগ্রেসের এই সিদ্ধান্তে আখেরে লাভ হবে বিজেপিরই।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485