মার্কিন মুলুকে মহাত্মা গান্ধীর মূর্তি ভাঙার ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ হোয়াইট হাউসের

0
83

নিজস্ব সংবাদদাতা, ওয়েব ডেস্কঃ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মহাত্মা গান্ধীর মূর্তি ভাঙার মতো ভয়াবহ ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করল হোয়াইট হাউস। হোয়াইট হাউসের প্রেস সচিব কেইলে ম্যাকএনানি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বলেছেন, মহাত্মার মর্যাদা রক্ষা করা উচিত। ভারতীয় দূতাবাসের কাছে এই ঘটনায় মাথা কাটা গিয়েছে আমেরিকার।

Narendra Modi in white house | newsfront.co
ওয়াশিংটনে ভারতীয় দূতাবাসের সামনে অবস্থিত গান্ধী মূর্তি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন। ফাইল চিত্র

ভারতীয় দূতাবাসের তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়, দূতাবাসের সামনে মহাত্মা গান্ধী মেমোরিয়াল প্লাজায় মহাত্মা গান্ধীর মূর্তিটিকে ১২ ডিসেম্বর খলিস্তানি সমর্থকরা ভেঙে ফেলে। হিংসাত্মক আর ভারত বিরোধী খলিস্তানিদের নিন্দা করে ভারতীয় দূতাবাসের তরফে বলা হয়, প্রতিবাদের নামে শান্তি ও ন্যায়বিচারের প্রতীকের ক্ষতি করা চরম নিন্দনীয়।

আরও পড়ুনঃ মোদী ভগবান! আসামে ‘বিদেশি’ তকমা নিয়েই প্রয়াত শতায়ু বৃদ্ধ

প্রসঙ্গত, গত শনিবার কৃষক বিক্ষোভের সমর্থনে ওয়াশিংটনে ভারতীয় দূতাবাসের ঠিক সামনেই মহাত্মা গান্ধীর মূর্তিতে হামলা চালায় খলিস্তানি সমর্থকরা। সেই ঘটনার চারদিন পর মুখ খুলল হোয়াইট হাউস। সাংবাদিক বৈঠকে প্রশ্নের উত্তরে প্রেস সচিব বলেন, ভয়ঙ্কর ঘটনা।

আরও পড়ুনঃ সব চেষ্টা ব্যর্থ ট্রাম্পের, অবশেষে বিডেনের জয়ে সিলমোহর ইলেক্টোরাল কলেজের

মহাত্মা গান্ধীর মতো মানুষের মূর্তি বিকৃত করা বা ভেঙে দেওয়া মোটেই কাম্য নয়। যিনি শান্তি-সুবিচার এবং স্বাধীনতার জন্য সংগ্রাম করেছেন তাঁর স্মৃতিসৌধে এমন আক্রমণ অন্যায়।

উল্লেখ্য, এই মূর্তিটি ২০০০ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টনের উপস্থিতিতে উন্মোচন করেন। এই ঘটনা প্রসঙ্গে প্রতিরক্ষা বিভাগের মুখপাত্র জানিয়েছেন, “বিদেশি দূতাবাসের সামনে এমন ঘটনা অনভিপ্রেত। এর সুরক্ষার দায় সম্পূর্ণ আমাদের। বিষয়টি নিয়ে ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে নিরন্তর যোগাযোগ রাখা হয়েছে।”

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here