এবারের আসরের প্রথম সেঞ্চুরিয়ন বাটলার! তাঁর কাঁধে ভর দিয়ে লঙ্কান তরী পার

0
14

 শরীয়তুল্লাহ সোহন, ওয়েব ডেস্কঃ

গত রাতের ম্যাচে ইনিংসের শুরু থেকেই শ্রীলঙ্কান পেসাররা ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের ব্যাটের নিচের অংশে আঘাত করছিলেন। বল আসছিল প্রত্যাশার চেয়ে অনেকটাই নিচু হয়ে। শারজার এমন উইকেটের সঙ্গে দ্রুত মানিয়ে নিতে পারেনি জেসন রয়, ডেভিড মালান ও জনি বেয়ারস্টোরা।

তবে ওপেনার জস বাটলার ছিলেন আলাদা। ২০ ওভারের ম্যাচে প্রথম ১০ ওভার লঙ্কান বোলারদের দিয়ে ইনিংসের বাকিটা সময় দাপট দেখিয়েছেন বাটলার। আর তাতেই বাটলার পেয়ে গেছেন নিজের ও এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরি। ইংল্যান্ড দলও ৪ উইকেটে ১৬৩ রানের লড়াই করার মতো পুঁজি পেয়ে যায়। যেই রান তাড়া করতে গিয়ে ১৩৭ রানে থেমেছে লঙ্কান ইনিংস। ২৬ রানের সহজ জয়ই পেয়েছে ইংল্যান্ড।

Jos Buttler
আসরের প্রথম সেঞ্চুরিয়ন বাটলার

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের দৌড়ে টিকে থাকতে হলে আজকের ম্যাচে জিততেই হতো লঙ্কানদের। দলটির রান তাড়ার শুরুটা অবশ্য হয়েছিল আশা জাগানোর মত । কিন্তু পরে ইনিংস যত সামনের দিকে এগিয়ে গিয়েছে, তারা ততই ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে যেতে থেকেছে। প্রথম ওভারে পাথুম নিশাঙ্কা রান আউট হলেও ক্রিস ওকস আর মঈন আলীর করা দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওভারে চার-ছক্কায় রান বাড়াতে থাকেন কুশল পেরেরা ও চারিথ আসালাঙ্কা।

England in T20
লঙ্কানদের বধ করে নানা ভাবে উদযাপন। ছবি: টুইটার

কিন্তু অধিনায়ক এউইন মরগানের মাথার খেলায় পেরে ওঠেনি লঙ্কান টপ অর্ডার। দুই বাঁ হাতি ব্যাটসম্যানের সামনে লেগ স্পিনার আদিল রশিদকে নিয়ে আসেন। একের পর এক গুগলি দিয়ে লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের মেরে খেলাকে ঝুঁকিপূর্ণই করে তোলেন তিনি। মরগানের পাতা ফাঁদে সবার আগে পা দেন আসালাঙ্কা। রশিদের গুগলি মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন ২১ রান করে। রশিদের পরের ওভারে একই ভুল করেন আরেক বাঁ হাতি পেরেরা। স্লগ সুইপ করতে গিয়ে এবার মরগানের হাতে ক্যাচ তুলে লঙ্কান ওপেনার। বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি আভিস্কা ফার্নান্দো ও ভানুকা রাজাপক্ষের ইনিংসও।

আরও পড়ুনঃ ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন আসগর আফগান

Sri lanka player
পাওয়ার প্লে তে দারুণ বল করেন লঙ্কান বোলাররা

৫ উইকেট হারিয়েও লড়াই জারি রেখেছিল লঙ্কানরা। ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ও দাসুন শানাকা ৩৬ বলে ৫৩ রানের জুটি গড়েও দল জেতাতে পারেননি নিজেদের ভুলে। ইংল্যান্ডের পেসার টাইমাল মিলস ১.৩ ওভার বোলিং করেই চোটের কারণে মাঠ ছাড়েন। ইংল্যান্ডের বোলার সংকটের সুবিধাটাও নিতে পারেনি লঙ্কান লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানরা। ১২৯ রানের সময় ষষ্ঠ উইকেট পড়ার পর ১৩৭ রানে অলআউট হয় শ্রীলঙ্কা। মঈন, রশিদ ও জর্ডান দুটি করে উইকেট নিয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ কিউইদের কাছে হেরে কার্যত বিশ্বকাপ সেমিফাইনালের রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ল টীম ইন্ডিয়া

এর আগে ইংল্যান্ডের ইনিংসের শুরুটাও ছিল লঙ্কানদের মতো। ইনিংসের ১০ ওভার শেষে ইংল্যান্ডের রান ছিল ৩ উইকেটে মাত্র ৪৭ রান। ততক্ষণে লঙ্কান স্পিনারদের ওভার প্রায় শেষ। বোলিংয়ে যখনই ফাস্ট বোলাররা এলেন, তখন থেকেই ব্যাট বড় হতে থাকে বাটলারের। তাঁকে সঙ্গ দিয়েছেন অধিনায়ক মরগান। দুজন মিলে ৭৮ বলে ১১২ রান যোগ করেন। মরগানের ব্যাট থেকে আসে ৩৬ বলে ৪০ রান। ওদিকে ৪৫ বলে ফিফটি করে ৬৭ বলে ১০১ রান করেন বাটলার, ইনিংসটি সেজেছে ৬টি চার ও ৬টি ছক্কায়। সেঞ্চুরির জন্য ইংল্যান্ড ইনিংসের শেষ বলে ছক্কা মেরেছেন বাটলার। আর ম্যাচ শেষে এমন দূর্দান্ত ইনিংস খেলার জন্য ম্যাচ সেরার পুরস্কার টি তাঁর ঝুলিতে গিয়েছে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here