লকডাউনে বেহালাবাদক ইন্দ্রদীপ ঘোষের নিবেদনে দুটি নতুন রাগ

0
39

নবনীতা দত্তগুপ্ত, বিনোদন ডেস্কঃ

সুরানুরাগীদের জন্য একটি সুখবর। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ধ্রুপদী বেহালাবাদক ইন্দ্রদীপ ঘোষ এই লকডাউনে দুটি নতুন রাগ বাঁধলেন তাঁর বেহালার তারে। ‘গণপতি’ এবং ‘ইন্দ্রধনুশ’ নামে দুটি নতুন রাগ বেঁধেছেন তিনি। শিল্পীর হাতের জাদুতে এই দুটি নতুন রাগ ইতিমধ্যেই বিশ্বের দরবারে প্রশংসিত হয়েছে। শ্রোতার কাছ থেকে প্রশংসা এবং ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া অর্জন করেছেন তিনি সামাজিক মিডিয়ায়।

Singer | newsfront.co

২০১৮ সালে ‘অ্যাসোসিয়েশন অফ অ্যালায়েন্স ক্লাবস ইন্টারন্যাশনাল’-এর তরফ থেকে শিল্পীকে ‘প্রিন্স অফ ভায়োলিন’ উপাধি দেওয়া হয়। সম্প্রতি তিনি আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক সম্পর্ক মানবাধিকার ও শান্তি কমিশন কর্তৃক দক্ষিণ এশিয়ার জন্য কনসোল এবং চ্যান্সেলর জেনারেলের মর্যাদাপূর্ণ পদে নিযুক্ত হয়েছেন, যা জাতিসংঘের অর্থনীতি ও সামাজিক বিষয় বিভাগের (ইউএন ডেসা) একটি আন্তঃসরকারি সংস্থা। আন্তর্জাতিক আরবিট্রেশন ও মানবাধিকার আদালত কর্তৃক দক্ষিণ এশিয়ার শান্তির বার্তাবাহক, শিল্প কলা ও সংস্কৃতির চান্সেলর হিসেবেও তিনি নিযুক্ত হয়েছেন, যা ইউএন-আইজিও, আইসিসি-আইসিএ এবং আইসিজে-র একটি স্বায়ত্তশাসন সালিশী প্রতিষ্ঠান। নতুন পদে বেশ খুশি শিল্পী।

আরও পড়ুনঃ ঘরে ঘরে অ্যামাজন প্রাইম ভিডিও অ্যাপ

তিনি এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে ইউরোপের লেবরিন্থে কাতালুনিয়া নামক একটি জনপ্রিয় সংগীত কর্মশালা সফলভাবে পরিচালনা করেছেন। দুর্দান্ত সাফল্য এবং জনপ্রিয়তার কারণে লেবরিন্থে জুলাই-অগাস্টে অনলাইনের মাধ্যমে ৩০ ঘণ্টা গ্রীষ্মকালীন সংগীত কর্মশালার জন্য ইন্দ্রদীপ ঘোষকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।
মায়েস্ট্রো ইন্দ্রদীপ ঘোষ হিউস্টন, টেক্সাসের গ্লোবাল ক্রিয়েটিভ আর্টস অ্যাকাডেমির (জিসিএএ) শৈল্পিক পরিচালক। তিনি জিসিএএ-র সমস্ত সাংস্কৃতিক ও আর্থিক কার্যক্রম তদারকি করেন।

আরও পড়ুনঃ  ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামের পাশে ডিজাইনার অনুশ্রী মালহোত্রার ‘রাহি’, থাকবেন আগামীতেও

তিনি উত্তর ও দক্ষিণ ভারতীয় ধ্রুপদী সংগীতকে একক মঞ্চে আনার এক অন্যতম প্রায়াস নিয়েছেন ‘তানসেন-তায়াগরাজ সংগীত ও নৃত্য উৎসব’-এর মাধ্যমে । এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে শরতকালে এবং ভারতে শীতের সময় হয়। সম্প্রতি জিসিএএ প্রকাশ করেছে সর্বপ্রথম বাণিজ্যিক ভারতীয় বেহালার সিডি ‘ট্রিবিউট টু মিয়াঁ তানসেন অন ভিয়োলা’, যা সমস্ত বড় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলিতে উপলব্ধ। তিনি টেক্সাসের অস্টিন, স্কুল অফ ইন্ডিয়ান পারকশন অ্যান্ড মিউজিকের অনুষদ প্রশিক্ষক হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেন।

ইন্দ্রদীপ ঘোষ বলেন, “আমি আমার সংগীতের প্রতি ভালোবাসা থেকে দুটি নতুন রাগ তৈরি করেছি যা আমাকে প্রচুর আনন্দ দিয়েছে। সংগীত নানা প্রকারের অবসাদ নিরাময়ে সাহায্য করে এবং আমি বিশ্বাস করি যে এই অতিমারী থেকে আমাদের জীবনকে সঠিক পথে ফিরিয়ে আনতে সংগীত সহায়ক হবে।”

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485