পরিযায়ী শ্রমিক নিয়ে টুইটে রাজ্যকে খোঁচা রাজ্যপালের

0
19

শুভম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতাঃ

রাজ্যের আর্জি না মেনে বিপুল হারে পরিযায়ী শ্রমিক সহ ট্রেন পাঠাচ্ছে কেন্দ্র, এমনই অভিযোগ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। ২৪ ঘণ্টায় ২৮টি ট্রেন রাজ্যে আসায় হিমশিম খাচ্ছে রাজ্য প্রশাসন৷ রাজ্যে দ্বিগুণ হারে করোনা সংক্রমণও বাড়তে শুরু করেছে।

Jagdeep Dhankhar | newsfront.co
ফাইল চিত্র

কিন্তু তার জন্য রাজ্য যেভাবে পরিযায়ী শ্রমিকদের আসাকে দোষ দিচ্ছে, সেটা ঠিক নয়। শুক্রবার পর পর তিনটি ট্যুইট করে রাজ্যকে খোঁচা দিয়ে এভাবেই নিজের মনোভাব ব্যক্ত করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়।

এদিন রাজ্যপাল ট্যুইট করে বলেন ‘যে পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে ফিরে আসছেন তারা আমাদের আপনজন। তারা পেটের দায়ে রাজ্য ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীকে বলব ওরা আমাদের সম্পদ, কেউ ফেলনা নয়। আমাদের ছেলেমেয়েরা প্রতিকূল পরিস্থিতিতে পড়ে নিজেদের ঘরে আপনজনের কাছে ফিরতে চাইতেই পারেন।

বিশ্বব্যাপী মহামারীর প্রেক্ষাপটে নিজেদের বাড়ি ফিরে আসলে তাদের উষ্ণ আমন্ত্রণ প্রাপ্য। তাদেরকে করোনা সংক্রমণকারী হিসাবে বলা অন্যায়, অত্যন্ত হতাশা ব্যঞ্জক এবং হৃদয়বিদারক। মানবিক মূল্যবোধ অটুট রেখে করোনা সংক্রান্ত সমস্ত নিয়মাবলী এবং নির্দেশ মেনে চলা যায়, এটাই বলব মুখ্যমন্ত্রীকে।’ প্রসঙ্গত, প্রথম থেকেই রাজ্যে পরিযায়ী শ্রমিক ফেরা নিয়ে রাজ্য-কেন্দ্র দ্বন্দ্ব শুরু হয়। রাজ্যের যুক্তি ছিল, আমফান বিধ্বস্ত বঙ্গে এখন ট্রেন পাঠানো বন্ধ না করলে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি বিগড়ে যাবে।

আরও পড়ুনঃ বাসের ন্যূনতম ভাড়া ১৪ টাকা, প্রতি কিমিতে ৫ টাকার প্রস্তাব

কিন্তু কেন্দ্রের তরফে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ অভিযোগ করেন, অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় পশ্চিবঙ্গ পরিযায়ী শ্রমিক ফেরানো নিয়ে আন্তরিক নয়। যদিও রাজ্যের দাবি, একাধিক শ্রমিক স্পেশাল ইতিমধ্যেই রেলের কাছে চাওয়া হয়েছে, কিন্তু রেলই প্রথমে অনুমোদন দেয়নি। সব কিছু কথা হয়ে যাওয়ার পরেও এখন রাজ্যের বেহাল স্বাস্থ্য পরিকাঠামোয় করোনা পরিস্থিতি সামলাতে না পেরে যেভাবে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের করোনা সংক্রমণের হার বৃদ্ধির জন্য পরিযায়ী শ্রমিকদের নিজের রাজ্যে ফিরে আসাকে দোষ দিচ্ছেন, কার্যত রাজ্যের সেই মনোভাবকেই কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন রাজ্যপাল।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485