শিয়রে দোল উৎসব,ফেরিঘাটে উপেক্ষিত যাত্রী নিরাপত্তা

0
43

শ্যামল রায়,নবদ্বীপঃ

hole festival coming soon
নিজস্ব চিত্র

আর কদিন বাদেই চৈতন্য ভূমি নবদ্বীপ ও মায়াপুরে দোল উৎসব শুরু হবে। এই দোল উৎসবকে কেন্দ্র করে দেশ বিদেশ থেকে লক্ষাধিক পর্যটকের ভিড় হয়। নবদ্বীপ থেকে মায়াপুরে যেতে হলে নৌকা পারাপার অবশ্যম্ভাবী। নবদ্বীপ মায়াপুর ফেরিঘাটে এখনো পর্যন্ত যাত্রীদের নিরাপত্তা ব্যবস্থার অভাব রয়েছে বলে অভিযোগ যাত্রী সাধারণের।জানা গিয়েছে যাত্রীদের জন্য লাইফ জ্যাকেট থাকা সত্ত্বেও কর্তৃপক্ষ ব্যবহারের জন্য যাত্রীদের কাছে দেন না কিংবা যাত্রীরা পরেন না। অর্থাৎ অভিযোগ পাল্টা অভিযোগের এই নবদ্বীপ ফেরিঘাটে চলছে যাত্রী পারাপার।

আরও পড়ুন: জাতীয় ভোটার দিবসে সচেতনতার প্রচার প্রতিযোগিতায় সফলদের পুরস্কার বিতরণ

নবদ্বীপ ফেরিঘাটে পৌরসভা পরিচালিত লঞ্চ রয়েছে একটি , কিন্তু আগামী দোল উৎসবে যাত্রীদের এতটাই ভিড় হয় যে সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয় ফেরি ঘাটের মাঝিদের।তাই যাত্রীদের তরফ থেকে অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে যে এখন থেকে যদি ফেরি ঘাট কর্তৃপক্ষ যাত্রীদের পারাপারে নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে না দেখেন তাহলে সেটা চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়াবে।

আরও জানা গিয়েছে যে প্রতিদিন সকালবেলা মায়াপুর এলাকা থেকে কয়েকশত রাজমিস্ত্রি নবদ্বীপ শহরে কাজ করতে আসেন। বলতে হয় সকালে শ্রমিকদের প্রচন্ড চাপ থাকার কারণে ফেরিঘাটের মাঝিদের হিমশিম খেতে হয়।

সময় বাঁচাতে অধিকাংশ মানুষ নবদ্বীপ ফেরিঘাট ব্যবহার করে থাকে। তাই দোলের আগে ফেরিঘাটে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজানোর উপর জোর দিতে দাবি জানাচ্ছে শহরবাসী এবং যাত্রী সাধারণ।
কুয়াশা হলে প্রচণ্ড সমস্যায় পড়েন ফেরিঘাট কর্তৃপক্ষ। কিন্তু যাত্রী কতজন উঠবে এ বিষয়ে কিন্তু এখনো নির্বাক নৌকার মাঝিরা।যদিও সিভিক পুলিশ ফেরিঘাটে থাকেন কিন্তু কতজন নৌকায় উঠবে এ বিষয়ে সঠিক পদক্ষেপ নেয়া হয় না ঘাট কর্তৃপক্ষের তরফে। তবে পুলিশের দাবি ফেরিঘাটে পর্যাপ্ত পুলিশ এবং সিভিক পুলিশ যাত্রীদের নিরাপত্তার নজরদারিতে থাকেন।এছাড়াও পর্যাপ্ত পরিমাণ লাইফ জাকেট আছে। এক্ষেত্রে যাত্রীদের সচেতন হতে হবে এবং লাইফ জ্যাকেট পরিধান করতে হবে।

যদিও দোল উৎসব উপলক্ষে পুলিশের তরফ থেকে সকলকে নিয়ে সমন্বয় কমিটির মিটিংয়ে আলোচনা করা হয় যাতে যাত্রী পারাপারে কোন রকম দুর্ভোগ বা অশান্তি না হয়।প্রতিবছরের মতো এবছরও পর্যাপ্ত সিভিক পুলিশ ফেরিঘাটে মোতায়েন করা থাকবে এবং যাত্রীদের পারাপারে কড়া নজরদারি রাখা হবে জানিয়ে দেয়া হয়েছে পুলিশের তরফ থেকে।তবুও যাত্রীরা আশঙ্কা করছেন কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে যাত্রী পারাপার না হলে নবদ্বীপ ফেরিঘাটে যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে । তাই দোল উৎসবের আগেই নবদ্বীপ ফেরিঘাটকে কড়া নিরাপত্তার মোড়কে মুড়িয়ে ফেলার দাবি উঠেছে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485