ভারতে আজ কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে মেগা টিকাকরণ অভিযান শুরু করল কেন্দ্র

0
18

মোহনা বিশ্বাস, ওয়েব ডেস্কঃ

আজ, মঙ্গলবার ‘হর ঘর দস্তক’-এর মাধ্যমে দেশজুড়ে মেগা-টিকাকরণ অভিযান শুরু করলো কেন্দ্রীয় সরকার। এদিন ধন্বনতরী উৎসব উপলক্ষে উন্নয়নের সাথে যুক্ত এমন মানুষদের নিয়ে এই অভিযান শুরু করলো কেন্দ্র। গোটা মাসজুড়ে ডোর-টু-ডোর টিকাকরণ অভিযান চলবে। যে জেলাগুলিতে এখনও সেভাবে টিকা পৌঁছতে পারেনি, সেইসব দুর্বল জেলার মানুষদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে টিকা দেওয়ার লক্ষ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের এই টিকাকরণ অভিযান।

Covid vaccine
প্রতীকী চিত্র

গতকাল, সোমবার গ্লাসগোয় জলবায়ু সম্মেলনে যোগ দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এরপরই তিনি জানান, ভারতে ফিরেই একটি কোভিড-১৯ নিয়ে একটি পর্যালোচনা বৈঠকে বসবেন তিনি।

জানা গিয়েছে, করোনভাইরাস পর্যালোচনা বৈঠকে যে জেলাগুলিতে কম টিকাকরণ হয়েছে সে বিষয়ে আলোচনা হবে। যে সব অঞ্চলগুলিতে ৫০ শতাংশের কম মানুষের প্রথম ডোজ হয়েছে এবং দ্বিতীয় ডোজ হয়েছে আরও কম মানুষের। সেইসব অঞ্চলগুলিতে কীভাবে আরও টিকাকরণ করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা হবে ওই বৈঠকে। গত সপ্তাহে রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির স্বাস্থ্য মন্ত্রীদের সঙ্গে এই বৈঠকে বসবেন প্রধানমন্ত্রী। টিকাকরণ বাড়ানোর জন্য ‘হর ঘর দস্তাক’ প্রচারাভিযানের বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে জানালেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডাভিয়া।

আরও পড়ুনঃ বাড়ল দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা! গত ২৫০ দিনে সর্বনিম্ন অ্যাকটিভ কেস

তিনি বলেছেন, “আমরা একটি মেগা টিকা প্রচারাভিযান শুরু করতে যাচ্ছি। যার নাম ‘হার ঘর দস্তক’। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, আগামী এক মাসের জন্য, স্বাস্থ্যসেবা কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে দ্বিতীয় ডোজের জন্য যোগ্য ব্যক্তিদের এবং যাঁরা এখনও প্রথম ডোজ গ্রহণ করেননি তাঁদেরও টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।”

আরও পড়ুনঃ ১২ ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতার মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কথায়, ভারতের প্রায় ৭৭ শতাংশ মানুষকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে। কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়তে টিকার উভয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৩২ শতাংশ মানুষকে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডাভিয়া আরও বলেন, “এখনও পর্যন্ত ১০ কোটিরও বেশি মানুষ ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নেননি। এবার দ্বিতীয় ডোজের জন্য যোগ্য ব্যক্তিদের ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত।” টিকাদানের গতি এবং কভারেজ বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন যে দেশে ১০.৩৪ কোটিরও বেশি মানুষ রয়েছেন যাঁরা নির্ধারিত সময়ের ব্যবধানের পরে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেননি। তাই টিকাকরণ অভিযান দ্রুত শুরু করার কথা জানিয়েছেন তিনি।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here