কংগ্রেস কর্মীর মৃত্যু ঘিরে অগ্নিগর্ভ লক্ষ্মীপুর

0
16

পিয়া গুপ্তা,উত্তর দিনাজপুরঃ

Congress leader dead
নিজস্ব চিত্র

দলীয় কর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় উত্তেজিত কংগ্রেস কর্মীরা পথ অবরোধ করার পাশাপাশি তৃনমূল কংগ্রেসের এক পঞ্চায়েত সদস্যের বাড়িসহ এলাকার পাঁচটি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

Congress leader dead
নিজস্ব চিত্র
Congress leader dead
নিজস্ব চিত্র

পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে।ঘটনাস্থলে চোপড়া থানার র‍্যাফ ও কমব্যাট ফোর্সসহ বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছালেও প্রায় ঘন্টাখানেক এলাকার কংগ্রেস কর্মীদের বাধার মুখে পড়ে প্রবেশ করতে পারেনি।ফলে পুলিশের পক্ষে পরিস্থিতি প্রাথমিকভাবে নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব হয়নি।তবে পরবর্তীতে পুলিশ গ্রামে ঢুকে টহলদারি চালায়।

আরও পড়ুন: রাস্তার দাবীতে পঞ্চায়েত ঘেরাও,খণ্ডযুদ্ধে অগ্নিগর্ভ এলাকা

Congress leader dead
নিজস্ব চিত্র
Congress leader dead
নিজস্ব চিত্র

কংগ্রেস- তৃনমূল কংগ্রেসের সংঘর্ষে কংগ্রেস কর্মী সাহিদ আলমের মৃত্যুর ঘটনায় দফায় দফায় উত্তেজনা বেড়েই চলেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া থানার লক্ষ্মীপুর গ্রামে।চোপড়ায়
লক্ষ্মীপুরে রাজ্য সড়ক অবরোধ করার পাশাপাশি বেশ কয়েকটি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত কংগ্রেস কর্মীরা।

মৃত কংগ্রেস কর্মী সাহিদ আলমের ভাই মহসীন আলম তার ভাইকে খুন ও এলাকায় সন্ত্রাস চালানোর ব্যাপারে সরাসরি এলাকার তৃনমূল কংগ্রেস বিধায়ক হামিদুল রহমানকেই দায়ী করেছেন।তার অভিযোগ, চোপড়ার তৃনমূল বিধায়ক হামিদুল রহমানের নেতৃত্বেই গোটা চোপড়া ব্লকজুড়ে খুন সন্ত্রাস চালাচ্ছে তৃনমূল কংগ্রেস।

যদিও এলাকার তৃনমূল কংগ্রেস নেতা তথা উত্তর দিনাজপুর জেলাপরিষদের সদস্য আজিজ আহমেদ পালটা অভিযোগ করে বলেন, কংগ্রেস কর্মীরাই চোপড়ায় সন্ত্রাস চালাচ্ছে।কংগ্রেস কর্মীদের সন্ত্রাসের ভয়ে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তারা।

কংগ্রেস আশ্রিত দুস্কৃতীরা তৃনমূল কংগ্রেস নেতা কর্মীদের বাড়িঘরে ঢুকে ভাঙচুর চালাচ্ছে বলে অভিযোগ তৃনমূল নেতা আজিজ আহমেদের। কংগ্রেস ও তৃনমূল কংগ্রেসের অভিযোগ ও পালটা অভিযোগে উত্তপ্ত হয়ে উঠছে উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকের লক্ষীপুর,ডাঙাপাড়াসহ বেশ কয়েকটি গ্রাম।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here