গোয়ায় তৃণমূলের পক্ষ থেকে নির্বাচনী প্রচারের দায়িত্বে সাংসদ মহুয়া মৈত্র

0
30

শরীয়তুল্লাহ সোহন, ওয়েব ডেস্কঃ

চেহারায় দারুণ স্মার্ট, ইংরেজিতে সুবক্তা, দীর্ঘদিন বিদেশে থাকা, সাংসদ কাঁপানো বক্তা অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারী মহুয়া মৈত্রকে গোয়ায় যাবতীয় নির্বাচনী প্রচারের দায়িত্ব তুলে দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জী। মহুয়া মৈত্রকে এমন গুরু দায়িত্ব দেওয়ার পিছনে সবথেকে বড় কারণ হল বিগত কিছু দিন আগে তাঁর নেতৃত্বে পশ্চিমবঙ্গের উপনির্বাচনে দলের দারুণ ফলাফল।

Mahua moitra | newsfront.co
ফাইল চিত্র

মমতা ব্যানার্জীর স্বনামধন্য ভাইপো তরুণ জনপ্রিয় নেতা অভিষেক ব্যানার্জী দলের সর্বভারতীয় সম্পাদক হওয়ার পর থেকে তৃণমূল নিজ রাজ্যের বাইরেও বিভিন্ন রাজ্যে ক্ষমতা বিস্তারের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। সেই কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজ্যের বাইরে ত্রিপুরা ও গোয়ার বিধানসভা ভোটে অংশগ্রহণ করতে চলেছে তৃণমূল দল।

দেশের সবচেয়ে ছোট রাজ্য গোয়া। ৪০ টি আসনের বিধানসভায় আগামী ফ্রেব্রুয়ারি ও মার্চে ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করা হয়েছে। গোয়ার মত ভিন্ন ভাষীর মানুষের বাস।সেই রাজ্যে ভোটে ভালো ফল করতে একজন যোগ্য স্মার্ট ইংরেজিতে সুবক্তা লিডারের দরকার ছিল। সেইদিক থেকে মহুয়া মৈত্র একদম পারফেক্ট। দল থেকে এমন বিশাল দায়িত্ব ভার পাওয়ার পর মহুয়া মৈত্র দারুণভাবে উচ্ছ্বসিত। সেটা তাঁর কথায় স্পষ্ট ভাবে প্রকাশ পেয়েছে। ভোটের দায়িত্ব পাওয়ার পর সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, “এই রাজ্যে আমাদের ভালো ফল করার যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। এটা একটা বিশাল চ্যালেঞ্জ । আমি সেই চ্যালেঞ্জ নিচ্ছি।” এছাড়াও তিনি বলেন, “আমি যে পদ্ধতি অবলম্বন করে ভোটে কাজ করি সেটা দলকে জানিয়েছি। বুথে বুথে গিয়ে সেই পদ্ধতিতে ভোট পরিচালনা করবো। দু একদিনের মধ্যে গোয়া যাব এবং এখন থেকে সেখানে থাকব।”

উল্লেখ্য, চলতি বছরের অক্টোবরের শেষের দিকে গোয়া সফরে গিয়েছিলেন মমতা ব্যানার্জী । কয়েক জায়গায় বেশ কয়েকটি সভাও করেন তিনি। সেই সভা গুলোতে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে বহু মানুষ অংশগ্রহণ করেছে এবং গোয়া জুড়ে তৃণমূলের ভালো একটা সাড়া জেগে উঠেছে। ডেরেক ও’ব্রায়ান সহ তৃণমূলের অনেক প্রথম সারির নেতারা প্রতিনিয়ত যাতায়াত করছে গোয়ায়। সাম্প্রতিক দলে যোগ দিয়েছেন কিংবদন্তি প্রাক্তন টেনিস তারকা লিয়েন্ডার পেজ । এছাড়াও যোগ দিয়েছেন নাফিসা আলি। গোয়ার বিধানসভা ভোটের ব্যাপারে মহুয়া মৈত্র বলেন, “গোয়া একটি ছোট্ট রাজ্যে। পশ্চিমবঙ্গের মতো বহুত্ববাদী সংস্কৃতি বিরাজ করছে গোয়া জুড়ে। সহিষ্ণু ও মুক্ত চিন্তার মানুষের বাস গোয়া জুড়ে । তাদের উন্নয়নের স্বার্থে আমাদের এই লড়াই। ”

আরও পড়ুনঃ রাজ্যে পৌর নির্বাচনে আইএসএফ-এর সাথে জোট নিয়ে ধোঁয়াশা বাম-কংগ্রেসের

বিশেষভাবে উল্লেখ্য, তৃণমূল যে দুটি রাজ্যে অর্থাৎ গোয়া ও ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সেই দুটি রাজ্যেই বিজেপি শাসিত। ইতিমধ্যে ত্রিপুরায় তৃণমূল কর্মীদের সাথে বিজেপি কর্মীদের সংঘাত ঘটেছে। এছাড়াও তৃণমূলের পার্টি অফিস ভাংচুর এবং দলের ব্যানার ছেঁড়া নিয়ে বহু বির্তকিত কান্ডে জড়িয়েছে বিজেপি সরকার বলে অভিযোগ করে তৃণমূল।

আরও পড়ুনঃ দিল্লির দূষণ রোধে দু’দিনের লকডাউনের পরামর্শ সুপ্রিম কোর্টের

অক্টোবরের শেষে রাজ্যের চার বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে শান্তিপুরের দায়িত্বে ছিলেন কৃষ্ণনগরের সাংসদ মহুয়া মৈত্র। এপ্রিলের বিধানসভা ভোটে ১৬০০০ হাজার ভোটে জয়লাভ করেছিল বিজেপি প্রার্থী। মাস ছয়েকের মধ্যে উপনির্বাচনে মহুয়ার নেতৃত্বে ফল পুরো উল্টে তৃণমূলের প্রার্থী ৬৪,৭৭৫ ভোটে বিশাল ব্যবধানে জয়লাভ করেন। তাই অনেক রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ধারণা , গোয়ায় তাঁকে দায়িত্ব দেওয়ার পিছনে শান্তিপুরের ‘মার্কশিট’ টনিক হিসেবে কাজ করেছে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here