পাহাড় রাজনীতিতে ফেরার আসামী বিমল গুরুংকে পাত্তা দিতে নারাজ বিনয় তামাং

0
28

শুভম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতাঃ

বিধানসভা ভোটের আগে পাহাড় রাজনীতিকে শান্ত করতে কিছুদিন আগে বিমল গুরুংকে ডেকে বৈঠক করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার তাদের বিরোধী দল বিনয় তামাং এবং অনীত থাপার সঙ্গেও কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

Nabanna meeting | newsfront.co
মুখ্যমন্ত্রীর সাথে বৈঠক। ছবিঃ বিভাস লোধ

বৈঠক শেষে পাহাড়ের উন্নয়ন ও শান্তিশৃঙ্খলার প্রশ্নে তৃণমূল সরকারকে সমর্থন জানালেও বিমল গুরুংকে কোনও পাত্তা দিতে নারাজ বিনয় তামাংরা। এদিনের বৈঠকের পরে এমনটাই বলেছেন গোর্খাল্যান্ড টেরিটোরিয়াল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (জিটিএ) প্রধান বিনয় তামাং।

মঙ্গলবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে পূর্ব নির্ধারিত বৈঠকের আগেই বিমল গুরুংকে গোর্খা ভবনের বৈঠকে অপ্রাসঙ্গিক দাবি করেছিলেন বিনয় তামাং।

আরও পড়ুনঃ বাগডোগরায় ঝটিকা সফরে নরেন্দ্র মোদী

বৈঠকের পর সাংবাদিকদের বিমল গুরুং নিয়ে প্রশ্নের জবাবে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার প্রাক্তন সুপ্রিমোকে কার্যত উপেক্ষা করে বিনয় বলেন, ‘‘পাহাড়ের উন্নয়ন, সেখানকার শান্তিশৃঙ্খলা নিয়ে কথা হয়েছে। বিমল গুরুং আলোচনার কোনও বিষয়ই ছিলেন না। বিমল গুরুং কে? বিমল গুরুং আইনের চোখে এক জন ফেরার অভিযুক্ত।”

আরও পড়ুনঃ রাজ্যের ৫ জেলার জেলাশাসক বদলি

তিনি আরও বলেন, ‘‘আমি আগেও বলেছি, এখনও বলছি, আমরা বিমল গুরুং-রোশন গিরি বা তাঁদের শিবিরের সঙ্গে কোনও ভাবে রাজনৈতিক বা প্রশাসনির ক্ষমতা এমনকি মঞ্চও ভাগাভাগি করতে রাজি নই। আমি এ দিনের বৈঠকের আগেও এ কথা বলেছি।

নবান্নের বৈঠকের পরও বলছি, ভবিষ্যতেও আমরা বিমলের সঙ্গে কোনও রকম সমঝোতায় যাব না। পর্যটন শিল্প পাহাড়ের সবচেয়ে বড় শিল্প। তাই পাহাড়ে ফের পর্যটকদের ভিড় হলে এই কোভিড পরিস্থিতিতে তাঁদের কী ভাবে সুরক্ষিত রাখা যায়, তার পরিকল্পনা নিয়ে কথা হয়েছে।” বিনয় তামাংয়ের জবাবেই স্পষ্ট, নবান্ন চাইলে বিমলকে পাহাড়ের রাজনীতিতে পাত্তা দিতে নারাজ বিনয় গোষ্ঠীরা।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here