রায়গঞ্জ মেডিকেলে দালালরাজ নিয়ে তুলকালাম, আটক এক

0
43

নিজস্ব সংবাদদাতা, উত্তর দিনাজপুরঃ

ভয় দেখিয়ে রোগীর পরিবারের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের এক অস্থায়ী কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার দুপুরে তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়েছে হাসপাতাল চত্বরে। বেশ কিছুদিন থেকেই রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে দালাল চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে, এমন অভিযোগ উঠছিল।

Emergency | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

রোগীর পরিবারের লোকজনদের কাছ থেকে নানা অজুহাতে টাকা নেওয়ার অভিযোগ এতটাই প্রকট হয়ে উঠেছিল, যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কানে গেলে তিনি তদন্তের জন্য সিআইডিকে নিযুক্ত করেন। এরপর দালালচক্রের সাথে যুক্ত দু’জনকে পুলিশ গ্রেফতার করে৷ আবার এদিন একই অভিযোগে এক অস্থায়ী কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ সংক্রমণে লাগাম পরাতে কলকাতায় ১৬টি পয়েন্টে অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু করছে পুরসভা

জানা গিয়েছে, রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের শিশু বিভাগে চিকিৎসাধীন এক শিশুর পরিবারের কাছ থেকে চিকিৎসকের সাথে কথা বলিয়ে দেওয়ার নাম করে হাসপাতালেরই এক অস্থায়ী কর্মচারী ২০০ টাকা নেয়। পরিবারের লোকজন সেই টাকা দিয়েও দেন।

আরও পড়ুনঃ গ্রেফতার ভুয়ো ৫ সাংবাদিক

অভিযোগ, টাকা নিয়েই সেখান থেকে চম্পট দেয় ওই কর্মী। পরে ওই কর্মীর কাছে টাকা ফেরত চাইলে বচসা শুরু হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অন্যান্য রোগীর আত্মীয়রাও এই অভিযোগ সমর্থন করেন। অভিযুক্ত কর্মীকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এ বিষয়ে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের প্রিন্সিপাল দিলীপ পাল বলেন, “দালালচক্রের অনেক কথাই শুনেছি৷ মুখ্যমন্ত্রীও সিআইডি নিযুক্ত করেছেন। আগামীতে আরও দালাল ধরা পড়লে খুশি হব।”

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here