ভদ্রেশ্বর থানার পুলিশকর্মীর তৎপরতায় ২৪ ঘন্টার মধ্যে ধরা পড়লো ৬ দুষ্কৃতি

0
54

নিজস্ব প্রতিবেদন, নিউজ ফ্রন্টঃ

চন্দননগর কমিশনারেট এলাকায় ডানকুনির একটি সোনার দোকানে গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার এক দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনা ঘটে। আগ্নেয়াস্ত্র সহ ৬ দুষ্কৃতি দিন দুপুরে স্থানীয় এক বিখ্যাত সোনার দোকানে ঢুকে প্রায় ২৫ কেজির বেশি সোনার গহনা ডাকাতি করে। দোকানের ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরায় ধরা পড়ে দুষ্কৃতিদের ছবি। সেই ছবি স্থানীয় সমস্ত থানায় হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয় পুলিশ।

আশানুল হক, ভদ্রেশ্বর থানার পুলিশ কর্মী 

ভদ্রেশ্বর থানার প্রবেশনারি সাব ইন্সপেক্টর আশানুল হক,যখন ডিউটি সেরে ভদ্রেশ্বর থেকে গোঘাটের বাসে ওঠেন বাড়ি ফেরার জন্য সেই সময় তাঁর কাছেও পৌঁছয় অভিযুক্তদের ছবি। তিনি খেয়াল করেন ঐ বাসেই রয়েছে অভিযুক্তরা এবং ডাকাতি করা জিনিস পত্রের যে ব্যাগটি ছবিতে দেখা গিয়েছে সেই একই ব্যাগ রয়েছে তাঁদের কাছেও। তিনি নিশ্চিত হন যে এরাই অভিযুক্ত যাদের খুঁজছে পুলিশ। দুষ্কৃতি দলটিকে গোটা যাত্রাপথে কড়া নজরে রাখেন ওই পুলিশ কর্মী। এরপরে নির্ধারিত বাস স্টপে নেমে নিজের বন্ধুদের দ্রুত ফোন করে ডাকেন এবং বাসটিকে থামান সকলে মিলে। ধরা পড়ে দুষ্কৃতিরা এবং উদ্ধার হয় ডাকাতি করা সমস্ত জিনিস। উল্লেখ্য, আশানুল হক মাত্র চার মাস আগেই যোগ দিয়েছেন পুলিশ বাহিনীতে। তাঁর তৎপরতাতেই মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যে এতবড় ডাকাতির সব অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়, শুধু তাই নয় উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে ডাকাতি হওয়া সব গয়না।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here