রাজনৈতিক বাছবিচার করে মানবাধিকারকে দেখা উচিত নয়ঃ প্রধানমন্ত্রী

0
27

ওয়েব ডেস্ক, নিউজ ফ্রন্টঃ

লখিমপুর খেরির ঘটনায় এতদিন মুখ খোলেননি প্রধানমন্ত্রী, তবে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ২৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে এবার সরাসরি না বললেও প্রসঙ্গের সূত্র ধরে একহাত নিলেন বিরোধীদের। বললেন, কিছু মানুষ রাজনৈতিক স্বার্থ সিদ্ধির অস্ত্র হিসেবে দেখে মানবাধিকারকে।

Narendra Modi
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

মোদী তাঁর ভাষণে বলেন, ‘কিছু মানুষ বাছবিচার করে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা খুঁজে পান। যখন রাজনীতির আঁতসকাচে মানবাধিকারকে দেখা হয়, তখনই আসলে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়। পক্ষপাতমূলক আচরণ গণতন্ত্রের পক্ষে ভয়ঙ্কর।’এখানেই শেষ নয়, প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানবাধিকারের নামে অনেকেই দেশের ভাবমূর্তি খারাপ করতে চান, এই প্রবণতা ভয়ঙ্কর।

আরও পড়ুনঃ ২ থেকে ১৮ বছর বয়সীরাও এবার টিকা পাবে, কোভ্যাক্সিনকে ছাড়পত্র দিল ড্রাগ কন্ট্রোল

উল্লেখ্য, এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি তথা মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান অরুণ মিশ্রও। তিনি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন ‘জম্মু- কাশ্মীরে নতুন যুগ’ শুরুর সম্পূর্ণ কৃতিত্ব অমিত শাহের।

আরও পড়ুনঃ থাকতে হবে না কোয়ারেন্টাইনে, ভারত ছাড়া ১১টি দেশের নাগরিকদের জন্য সীমান্ত খুলে দিচ্ছে সিঙ্গাপুর

তবে এই মন্তব্যের জন্য প্রধানমন্ত্রী , স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি তথা জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের তুমুল সমালোচনা করেছেন কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘গুজরাটের দিন থেকেই প্রধানমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মানবাধিকারের পরিহাস করে চলেছেন। এখন তাঁরা যুগলবন্দি করছেন মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের সঙ্গে। ভারতে গণতান্ত্রিক পরিসর ক্রমেই সঙ্কুচিত হচ্ছে।’

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here