ওয়েবডেস্কঃ

দেশের শীর্ষ আদালত সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে দীর্ঘ ৭৭ দিন পর আবারও সিবিআই ডিরেক্টর পদে অধিষ্ঠিত হয়েছিলেন অলোক বর্মা । কিন্তু
ফিরে আসার ২৪ ঘন্টা পার হতে না হতেই
তাঁকে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন সিলেক্ট কমিটি অপসারণ করে বদলি করল ফায়ার সার্ভিস, সিভিল ডিফেন্স ও হোমগার্ডের ডিরেক্টর জেনারেলের পদে। এই সিলেক্ট কমিটিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ছাড়াও ছিলেন লোকসভার বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে এবং সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ মনোনিত বিচারপতি এক কে সিক্রি।

অপসারণের নির্দেশ

অলোক বর্মা ও রাকেশ আস্থানার বিরোধিতা প্রকাশ্যে আসতেই ২০১৮ ‘ র ২৩ অক্টোবর মধ্য রাতে কেন্দ্র সরকারের এক নির্দেশিকায় ছুটিতে পাঠায় সিবিআই এর শীর্ষ পদাধিকারী অলোক বর্মাকে । কেন্দ্র সরকারের নির্দেশকে  চ্যালেঞ্জ ছুড়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন সিবিআই শীর্ষ কর্তা অলোক বর্মা । তারপর গত মঙ্গলবার অলোক বর্মা পুণরায় দায়িত্ব ফিরে পান ।
দায়িত্ব পেয়েই অন্তর্বর্তীকালীন ডিরেক্টর নাগেশ্বর রাওয়ের নির্দেশে বদলি হওয়া অফিসারদের পুনর্বহাল করেন। কিন্তু তার কয়েক ঘন্টা পরেই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন সিলেক্ট কমিটি তাঁকে সিবিআই ডিরেক্টর পদ থেকে অপসারণ করল ও এন. নাগেশ্বর রাওকে আবার অন্তর্বর্তীকালীন ডিরেক্টরের দায়িত্বে নিয়ে এল ।

ঘটনার সূত্রপাত হয়েছিল দুই উচ্চ পদস্থ সিবিআই আধিকারিক অলোক বর্মা ও রাকেশ আস্থানার মধ্যে কাদা ছোড়াছুড়িকে কেন্দ্র করে । রাকেশ আস্থনার বিরুদ্ধে বিপুল পরিমাণ ঘুষ সহ আর্থিক তছরুপের অভিযোগ তোলেন অলোক বর্মা সহ একাধিক সিবিআই আধিকারিক ।ঘটনায় বেগতিক বুঝে হস্তক্ষেপ করে কেন্দ্র সরকার । মোদী সরকার রাতারাতি নির্দেশিকা জারি করে ছুটিতে পাঠায়  ওই দুই শীর্ষ কর্তাকে। সেই সাথে অলোক বর্মা ঘনিষ্ঠ বেশ কয়েকজন সিবিআই আধিকারিককে ও সরিয়ে ফেলে কেন্দ্র । অনির্দিষ্ট কালের জন্য সাময়িক ভাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল এন নাগেশ্বর রাওকে ।(ফিচার ছবি- টাইমস অফ ইন্ডিয়া)

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here