ধেয়ে আসছে নিসর্গ, মহারাষ্ট্রের উপকূলবর্তী সাতটি জেলায় রেড অ্যালার্ট জারি মৌসম ভবনের

0
44

মোহনা বিশ্বাস, ওয়েব ডেস্কঃ

প্রবল শক্তি নিয়ে ক্রমশ ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ। মৌসম ভবন সূত্রে খবর, নিসর্গের স্থলভূমিতে আছড়ে পড়ার স্থান এবং সময়ে কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়ের অবস্থান দেখে ধরে নেওয়া হয়েছে দুপুর ১ টা থেকে দুপুর ৪ টের মধ্যে মহারাষ্ট্রের রায়গড় জেলার রিসর্ট শহর আলিবাগের দক্ষিণে আছড়ে পড়তে পারে নিসর্গ। সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ পূর্ব-মধ্য আরব সাগরে অবস্থান করছিল নিসর্গ। বুধবার ভোররাতেই প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে।

Cyclone | newsfront.co
প্রতীকী চিত্র

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ আজ বুধবার বিকালে উত্তর মহারাষ্ট্র ও দক্ষিণ গুজরাট সংলগ্ন হরিহরেশ্বরের এবং দমন অঞ্চলের উপর আছড়ে পড়বে। এই সময় ঝড়ের গতিবেগ থাকবে ১০০-১১০ কিমি। নিসর্গের চোখের দৈর্ঘ্য মোটামুটি ৬৫ কিলোমিটার। সমুদ্রপৃষ্ঠের তাপমাত্রা বেশি থাকায় প্রবল ঘূর্ণিঝড় আরও শক্তিশালী হয়েছে। তবে গতিবেগ কিছুটা কমেছে।

আরও পড়ুনঃ ফের গুলির লড়াই পুলওয়ামায় , নিরাপত্তাবাহিনীর এনকাউন্টারে খতম ৩ জঙ্গি

আগে যেখানে হাওয়ার বেগ ঘণ্টায় ৯০-১০০ কিলোমিটার ছিল, এখন তা কমে ঘণ্টায় ৮৫-৯৫ কিলোমিটারে দাঁড়িয়েছে। সর্বোচ্চ বেগ পৌঁছে যাচ্ছে ঘণ্টায় ১০৫ কিলোমিটারে। সাধারণত স্থলভাগে আছড়ে পড়ার সময় প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ থাকে ঘণ্টায় ১০০-১১০ কিলোমিটার। কখনও কখনও ঝড়ের বেগ ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার ছুঁয়ে ফেলে। নিসর্গের সতর্কতায় আগেই মহারাষ্ট্রের উপকূলবর্তী সাতটি জেলায় রেড অ্য়ালার্ট জারি করেছে মৌসম ভবন।

আরও পড়ুনঃ ব্রেকিং নিউজঃদক্ষিণ কাশ্মীরে তৈরি হচ্ছে যুদ্ধ বিমান ওঠা নামার এমার্জেন্সি রানওয়ে

মুম্বইয়ে এনডিআরএফ-এর ৮টি টিম, রায়গড়ে ৫টি টিম, পালঘরে ২টি টিম, থানেতে ৫টি টিম, রত্নগিরিতে ১টি টিম নামানো হয়েছে। উপকূলবর্তী অঞ্চলগুলি থেকে মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যবাসীকে অন্তত দু’দিন ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। ইতিমধ্যেই গুজরাটের উপকূলবর্তী অঞ্চল থেকে সরানো হয়েছে ৭৮ হাজারেরও বেশি মানুষকে।

আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা জানান, বর্ষার আগের ঘূর্ণিঝড এখন আর বিরল নয়। তাঁদের বক্তব্য, আরব সাগরে বর্ষার আগে ঘূর্ণিঝড়ের সংখ্যা বাড়ছে। তবে সেটাই যে ট্রেন্ড হতে চলেছে, সেই সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়ার আগে আরও কয়েক বছর পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে চাইছেন বিজ্ঞানীরা। পাশাপাশি সমুদ্রের তাপমাত্রা বৃদ্ধি-সহ অনেক বিষয়ের কারণে ঘূর্ণিঝড় দ্রুত তৈরি হচ্ছে কিনা, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে বর্ষার আগে আরব সাগরে তৈরি হওয়া এই শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় চিন্তায় ফেলবে মুম্বইবাসীকে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here