শিক্ষকের ঘুমানোর ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করে বরখাস্ত সাত ছাত্র

0
157

পিয়ালী দাস, বীরভূমঃ

Teacher sleeping video
ভিডিও’র স্ক্রিনশট।ইউটিউব থেকে

শিক্ষককে নিয়ে মজার ভিডিও বানানোর জন্য সাত ছাত্রকে সাময়িক বরখাস্ত।ঘটনাটি বীরভূম জেলা স্কুলের।
জানা গেছে, কয়েকদিন আগে বীরভূম জেলা স্কুলের কয়েকজন ছাত্র শিক্ষকদের নিয়ে একটি মজার ভিডিও বানায়।যে ভিডিওতে দেখানো হয়েছে একজন শিক্ষক পরীক্ষা চলাকালীন ঘুমাচ্ছেন।আর ছাত্ররা সেসময় একে অন্যের খাতা দেখে লিখছে।এরপরই দেখানো হয়েছে ছাত্ররা স্যারের পকেট থেকে তার মানিব্যাগ বের করে টাকা বার করেছে, এরপর ওই শিক্ষক জেগে প্রথমে ছাত্রদের বকাবকি করছেন আর শেষে একজন ছাত্র ওই শিক্ষককে মারধর করে ক্লাস থেকে ছুটে পালিয়ে যাচ্ছে।এই ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করা মাত্রই নড়েচড়ে বসে স্কুল কর্তৃপক্ষ।গত ২১ তারিখ ভিডিওটি স্কুল কর্তৃপক্ষের নজরে আসে।তারপরেই তারা ছাত্রদের অভিভাবকদের ডেকে পাঠান এবং ওই সাতজন ছাত্রকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বরখাস্ত করেন ওই সাত জন বিদ্যালয়ের​ কলা বিভাগের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।স্কুল সূত্রের দাবি,বিদ্যালয় ফোন আনা নিষিদ্ধ,এমনকি স্কুল পোশাক না পড়ে স্কুলে আসার​ উপরও নিষেধাজ্ঞা আছে।তৎসত্ত্বেও এই ছাত্র গুলি স্কুলের মধ্যে ফোন নিয়ে আসে এবং এই ধরনের ভিডিও করে, যার জন্য তাদেরকে বরখাস্ত করা হয়েছে।স্কুল সূত্রের আরও দাবি, এই ধরনের ভিডিও স্কুলের ভাবমূর্তিকে কালিমালিপ্ত করছে, শিক্ষকদের সম্মানহানিও করা হয়েছে।তাই যথোপযুক্ত ব্যবস্থা না নিলে অন্যান্য ছাত্রদের উপর এর কুপ্রভাব পড়বে।যদিও পুরো ঘটনা নিয়ে স্কুলের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।কারণ স্কুল চত্ত্বরে যদি ফোন আনা নিষেধ থাকে তাহলে ঐ ছাত্র স্কুলের ভিতরে ফোন নিয়ে প্রবেশ করলো কি করে?এমন একাদশ শ্রেণীর ছাত্রদের যদি অনির্দিষ্টকালের জন্য বরখাস্ত করা হয় সেক্ষেত্রে ওই ছাত্রদের বছর নষ্ট অব্দি হতে পারে।

আরও পড়ুন: কচিকাঁচাদের ঝুলন প্রতিযোগিতা বিদ্যানগরে

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485