টাকা না দেওয়ায় প্রসূতিকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ

0
5

নিজস্ব সংবাদদাতা,পশ্চিম মেদিনীপুরঃ

টাকা না দিলে প্রসূতি রোগীদের নাস্তানাবুদ হতে হয় মেদিনীপুর হাসপাতালে।পুত্র সন্তান হয়েছে ,এর জন্য ৫০০ টাকা দিতে হবে।

হাসপাতালের অভিযুক্ত অস্থায়ী কর্মী।নিজস্ব চিত্র

রোগীর পরিবার তা দিতে অস্বীকার করায়,সদ্যোজাত এবং তার মাকে শারীরিক দিক দিয়ে ক্ষতি করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়।নির্মম ঘটনাটি মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ।

আনন্দপুর এর আকুলসারা গ্রামের কিসমত আরা খাতুন প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে সোমবার মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজের মাতৃমাতে ভর্তি হন ।

রোগীর আত্মীয়।নিজস্ব চিত্র

ওই দিন সন্ধ্যায় কিসমত আরা খাতুন এক পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন।হাসপাতালে অস্থায়ী কয়েকজন কর্মী এবং কয়েকজন আয়া এসে রোগীর পরিবারের লোকজনের কাছে ৫০০ টাকা দাবি করেন ।

কিসমত আরা খাতুনের দাদা শেখ কাসেম আলী বলেন আমাদের কাছে অত টাকা ছিল না,পরিচিত লোক জনের কাছ থেকে ২০০ টাকা ধার নিয়ে সেই অস্থায়ী কর্মী এবং আয়া কে দিলে তারা সেই টাকা ছুড়ে ফেলে দেয় এবং ৫০০ টাকাই লাগবে এক টাকাও কম হবে না বলে তারা জানিয়ে দেয় ।

আরও পড়ুনঃ শীতলখুচিতে বিজেপি কর্মীদের উপর পুলিশি নিগ্রহের অভিযোগে মামলার হুমকি

কাশেম আলি, কিসমতারা খাতুনের দাদা।নিজস্ব চিত্র

এমন কি ওই টাকা না পেলে তারা সদ্যজাত এবং তার মায়ের শারীরিক অবস্থার ক্ষতি করতেও পিছপা হবে না বলে হুমকি দেওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রসূতির দাদা। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ বিবরণ দিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অভিযোগ জানিয়েছেন ওই পরিবার ।

স্থানীয় অন্যান্য রোগীদের বক্তব্য কিছু অস্থায়ী কর্মী এবং আয়া এরা রোজ এভাবেই জোর করে রোগীদের কাছ থেকে টাকা আদায় করেন । ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হবে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485