দুঃসাহসিক ভাবে মন্দিরে চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য বড়ঞায়

0
23

জৈদুল সেখ, মুর্শিদাবাদঃ

রাতে যথারীতি মন্দিরের তালাবন্ধ করে গিয়েছিলেন পুরোহিত। শুক্রবার সকাল ৮টা নাগাদ মন্দির খুলতে এসে তিনি দেখেন মন্দিরের তালা ভাঙা অবস্থায় রয়েছে। এরপরই দেখা যায় মন্দিরের ভেতরে কালীমূর্তির শরীরে থাকা একের পর এক বহুমূল্য সোনা ও রূপোর অলঙ্কারের কোনো হদিশ নেই।

Maa kali temple
কালীমন্দির। নিজস্ব চিত্র

মুর্শিদাবাদের বড়ঞা থানার মোহরা কান্দি গ্রামের কালীমন্দিরে এই চুরির ঘটনায় ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, প্রাচীনকালে এখানে মাটির কালীমূর্তি ছিল। পরবর্তী সময়ে এখানে বেনারস থেকে অষ্টধাতুর মূর্তি আনা হয়। এই দেবী মূর্তিতেই নিত্যপূজো করা হয়। কিন্তু তার মধ্যেই ঘটে গেল ভয়াবহ বিপর্যয়।

Police investigation
নিজস্ব চিত্র

বাসিন্দাদের মতে, অন্যান্যদিনের মতোই গ্রামের লোকজন মায়ের পুজো দিতে মন্দিরে এসেছিলেন। তাঁরাও এসে দেখেন দেবীর মাথার মুকুট, টিকলি, নুপুর, চোখ সহ যাবতীয় অলঙ্কার চুরি হয়ে গিয়েছে। বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বড়ঞাথানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে।

তবে মন্দিরের সামনে সিসি ক্যামেরা বসানোর ব্যাপারে থানা থেকে আগেই বলা হয়েছিল। কিন্তু শেষপর্যন্ত মন্দির চত্বরে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়নি। এদিকে সিসি ক্যামেরা বসানো থাকলে চোরকে সনাক্ত করা সহজতর হত। তবে প্রাচীন কালীমন্দিরে এভাবে চুরির ঘটনা কোনওভাবেই বাসিন্দারা মেনে নিতে পারছেন না। তাঁদের দাবি, অবিলম্বে এই ঘটনায় যে বা যারা জড়িত রয়েছে তাদের গ্রেফতার করা হোক।

আরও পড়ুনঃ পুলিশের জালে ভিন রাজ্যের দুই সোনা পাচারকারী

ওই গ্রামেরই অপর এক শিব মন্দিরেও তালা ভেঙে চুরি যায় মূর্তির সঙ্গে থাকা বেশ কিছু অলংকার। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গতকাল রাত্রে দুষ্কৃতীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তবে কারোর নজরে এখনো পর্যন্ত পড়েনি কে বা কারা এ ঘটনায় যুক্ত যদিও সম্পূর্ণ ঘটনার কথা বড়য়া থানায় জানানোর পর পুলিশ এসে ঘটনার তদন্ত শুরু করে তবে একের পর এক চুরির ঘটনার পর এবার আবারও বড়ঞাতে রাতের অন্ধকারে দুঃসাহসিক এই চুরির ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকাবাসী।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here