নদীতে স্নান করতে গিয়ে জলে ডুবে মৃত্যু তিন ছাত্রের

0
34

সুদীপ পাল,বর্ধমানঃ

three student dead drowning in the water
উদ্ধার করা হচ্ছে মৃতদেহ।নিজস্ব চিত্র

দামোদর স্নান করতে নেমে তিন তরুণের মৃত্যু হয়।আসানসোল দক্ষিণ থানার ডামরা এলাকার মর্মান্তিক এই ঘটনায় শোকের ছায়া নামে মৃতের পরিজনদের মধ্যে।জানা যায় তিনজনের কেউই সাঁতার জানতেন না।

বাড়িতে কাউকে না জানিয়েই নদীতে স্নান করতে এসেছিল বলে জানা যায়।স্নান করতে নেমেই ঘটে বিপত্তি দোমহানি রেল কলোনীর বাসিন্দা অরবিন্দ সাউ(১৯), পুরানো স্টেশন রেল কলোনীর বাসিন্দা অভিষেক হেলা(২১) ও মুরগাসোল বিবেকানন্দ পল্লীর বাসিন্দা অবিনাশ মল্লিক(২১) জলে তলিয়ে যায়।

পরিবার সূত্রে জানা যায় দুপুর আড়াইটে নাগাদ পাঁচজন তরুন একসঙ্গে ডামরা দামোদরের এই ঘাটে স্নান করতে এসেছিলেন। প্রথমে ওই তিনজন নদীতে নামেন। বাকি দুজন পাড়ে দাড়িয়ে ছিলেন।নদীতে নামার কিছুক্ষণ পরেই তিন জনকে তলিয়ে যেতে দেখে পাড়ে থাকা দুজন চিৎকার করে আশেপাশের লোকজনকে ডাকাডাকি করেন।

জানা যায়, সেই সময়ে নদীঘাটে বেশ কয়েকজন স্নান করছিলেন।ঘটনা বুঝতে পেরে তাঁরা ডুবতে থাকা তরুণদের জল থেকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন। খবর দেওয়া হয় আসানসোল দক্ষিণ থানায়।এলাকার বাসিন্দারা জলে নেমে তল্লাশি শুরু করেন। বিকেল পাঁচটা নাগাদ অরবিন্দ এবং অভিষেককে জল থেকে তোলা হয়। তার কিছুক্ষণ পরে তোলা হয় অবিনাশকে।

আরও পড়ুনঃ ঈদের বাজার করে ফেরার পথে পথদুর্ঘটনায় মৃত্যু দুই বন্ধুর

দ্রুত আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও শেষ রক্ষা হল না।ডাক্তার তিনজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।অবিনাশের বাবা রমেশ মল্লিক বলছেন, পরীক্ষা দিতে যাওয়ার নাম করে ঘর থেকে বেরিয়ে ছিল অবিনাশ।বাড়িতে কারও কাছে খবর ছিল না যে সে নদীতে স্নান করতে আসছে।

অরবিন্দ বেঙ্গালুরুর একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে পড়ছিলেন,অভিষেক আসানসোলের একটি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র এবং অবিনাশ আসানসোলের একটি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ছাত্র।তিনজনের আকস্মিক মৃত্যুতে পরিজনেরা ছাড়াও গোটা এলাকা শোকে বাকরুদ্ধ হয়ে গিয়েছে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485