রাস্তা তৈরিকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল

0
43

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ

tmc group conflict surrounding the road construction 2
নিজস্ব চিত্র

জেলা পরিষদের প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ সড়ক যোজনার কাজ জোর করে ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল স্থানীয় তৃণমূল উপপ্রধান বঙ্কিম রায়ের বিরুদ্ধে।এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে।কোচবিহারের মেখলিগঞ্জের কুচলিবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার ঘটনা।জানা গেছে, জেলা পরিষদের নিয়ন্ত্রনাধীনে শুরু হয়েছিল পাকা রাস্তা তৈরির কাজ।টেন্ডার দিয়ে কাজ শুরু হয়।পরে শুরু হওয়া রাস্তার কাজ আটকে দেন তৃণমূলের উপপ্রধান বঙ্কিম রায়।শুধু তাই নয় বদল করে দেওয়া হয় প্রকল্পের নাম।প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ সড়ক যোজনার থেকে বাংলার গ্রামীণ সড়ক যোজনা করা দেওয়া হয়।প্রকল্পের নাম পরিবর্তনের পরেই আন্দোলনে নামে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব।আন্দোলনে নেমে কোন সুরাহা হয়নি।পরে বঙ্কিম রায়ের নিজস্ব ঠিকাদার দিয়ে রাস্তার কাজ শুরু করানোতে তৃনমুল কংগ্রেসের ভেতরেই শুরু হয় গোষ্ঠীদ্বন্দ।
তৃণমূল কংগ্রেসের মেখলিগঞ্জের জেলা পরিষদ সদস্যা ফুলতি রায় অভিযোগ করে বলেন, উপপ্রধান বঙ্কিম রায় গায়ের জোরে কাজ ছিনিয়ে নিয়েছে।এখন রাস্তার কাজ খুবই নিম্নমানের হচ্ছে।সামনেই লোকসভা নির্বাচন।মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর নির্দেশে রাস্তার কাজ সঠিক ভাবে করতে হবে।যাতে মানুষের ক্ষোভ না থাকে।এই সব বিষয় জেলা স্তরে জানানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুনঃ চলাচলের অযোগ্য রাস্তা,ক্ষোভে জাতীয় সড়ক অবরোধ

tmc group conflict surrounding the road construction
নির্মিয়মান রাস্তা। নিজস্ব চিত্র

অন্যদিকে তৃনমুল উপপ্রধান বঙ্কিম রায় বলেন, “রাস্তার কাজ ভালো হলেই হল।যেই করুক এই কাজ।জেলা পরিষদের কাজ যে জেলা পরিষদের সদস্যকেই নিয়ন্ত্রণ করতে হবে এমন নির্দেশ কোথাও নেই।রাস্তার কাজ চলছে দ্রুত গতিতে। খুবই ভালো কাজ হচ্ছে।” যদিও স্থানীয় বাসিন্দারা রাস্তার মান নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।জানা গেছে, উপপ্রধান বঙ্কিম রায় তৃণমূল কংগ্রেসের বর্তমান ব্লক সভাপতি পরেশ চন্দ্র অধিকারীর অনুগামী বলে পরিচিত।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485