প্রাচীন ঘোষ বাড়ির পুজো কে ঘিরে কার্যত নিরাশ কোলাঘাটের বাড়বরিশার গ্রামবাসীরা

0
131

নিজস্ব সংবাদদাতা, পূর্ব মেদিনীপুরঃ

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পুরাতন পুজোর তালিকায় প্রথম সারিতেই নাম আসে কোলাঘাট বাড়বরিশা গ্রামের ঘোষ বাড়ির দুর্গাপুজো। জানা গিয়েছে এই পুজো শুরু হয়েছে পূর্বপুরুষ দুর্গাদাস ঘোষের হাত ধরে। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্বপুরুষ দুর্গাদাস ঘোষ জমিদারের থেকে জমির ইজারা পেয়ে সুদূর বর্ধমান থেকে কোলাঘাটে এসে বসত বাড়ি তৈরি করেছিল।

durga puja | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

তবে থেকেই শুরু হয়েছে ঘোষ বাড়ির দুর্গাপুজো, আরও জানা গেছে এই পুজো ৩০০ বছরের পুরাতন পুজো হিসাবে পরিচিত এলাকার মানুষ সহ পার্শ্ববর্তী জেলার মানুষের কাছে, পূর্বপুরুষের রিতিনীতি মেনে প্রাচীন এই পুজো হয়ে আসছে এতদিন ধরে। অন্যদিকে এই পুজো কে ঘিরে ঘোষ বাড়ির পরিবার পরিজন সহ গ্রামের মানুষ থেকে শুরু করে পার্শ্ববর্তী এলাকার মানুষ আনন্দে আত্মহারা হয়ে থাকে এই পুজোর কটা দিন।

আরও পড়ুনঃ পুজোমণ্ডপে বাংলা গান চালানোর আবেদন

maa durga | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

আরও পড়ুনঃ ধর্ম ভাষার সীমানা মিলে যায় দলসিংপাড়া বাজারের দুর্গা পুজোর আয়োজনে

নিজেদের বাড়ির আত্মীয়-স্বজনসহ বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে আড্ডা সাথে খাওয়া-দাওয়া এবং চারিদিকে ঘোরাফেরা। এভাবেই আনন্দ উপভোগ করা হত,পাশাপাশি বিগত বছরগুলোতে অঞ্জলীর ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত। তবে এই বছর মহামারি ভাইরাসের ফলে কার্যত নিরাশ এলাকাবাসী, পুজো হলেও বিগত বছরগুলোর মত সেই আনন্দ থাকছে না এবছর পুজোতে, জানা গিয়েছে পরিবারের বিভিন্ন আত্মীয়-স্বজনরা দেশ-বিদেশ সহ পার্শ্ববর্তী জেলা থেকেই পুজোর সময় একত্রিত হয়ে থাকেন, সেক্ষেত্রে মহামারি ভাইরাসের কারণে আসছেন না অনেকেই, অন্যদিকে হাইকোর্টের নির্দেশ অনুসারে সরকারি গার্ডলাইন অনুযায়ী পুজো মণ্ডপে “নো এন্ট্রি জোন” করে দেওয়ায় একত্রিত ভাবে বিগত বছরগুলোর মতো পুষ্পাঞ্জলি দেওয়া যাবে না।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সমস্ত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে এই বছরের পুজোতে। সরকারি নির্দেশ অনুসারে ১০ জনের বেশি মণ্ডপে প্রবেশ করতে পারবেন না। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সমদূরত্ব বজায় রেখে এবং মুখে মাস্ক পরে অবশ্যই মণ্ডপে ঢোকার ব্যবস্থা করেছেন পরিবারের তরফ থেকে। পরিবারের সদস্য পার্থসারথী ঘোষ বলেন,”আমরা প্রত্যেক বছর পরিবার-পরিজন ও আত্মীয়-স্বজন একত্রিত ভাবে মিলিত হই এই পুজোতে। তবে মহামারি ভাইরাসের কারণে এই বছর বিগত স্মৃতি হারাতে বসেছে, তবে এই বিষয় নিয়ে কিছুটা নিরাশ হলেও পূর্বপুরুষের রিতি অনুযায়ী চলছে মা দুর্গার আরাধনা।”

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here