নবমীর রাতে ভবানীপুরে পুলিশকে হেনস্থার অভিযোগে ধৃত মদ্যপ বাইক আরোহী

0
26

মোহনা বিশ্বাস, ওয়েব ডেস্ক:

নবমীর রাতে ভবানীপুর এলাকায় ধুন্ধুমার কাণ্ড। এক ট্রাফিক সার্জেন্টকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল এক মদ্যপ বাইক আরোহীর বিরুদ্ধে। আক্রান্ত চার পুলিশ কর্মী। নবমীর রাতে হেলেমেট না পরে মদ্যপ অবস্থায় বাইক চালাচ্ছিলেন এক ব্যক্তি। ভবানীপুরে পুলিশ বাইকটিকে থামালে শুরু হয় অশান্তি। পুলিশের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পরেন ওই বাইক আরোহী।

Kolkata Police
প্রতীকী চিত্র

শুধু তাই নয়, অশান্তি চরম আকার ধারণ করলে ওই মদ্যপ বাইক আরোহী, কর্তব্যরত পুলিশ সার্জেন্ট এবং পুলিশকর্মীদের মারধর করে অয়্যারলেস সেট ছিনিয়ে নেন বলে অভিযোগ ওঠে। রাতেই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, ধৃতের নাম সুব্রত দাস। কলকাতার বাগমারি এলাকার বাসিন্দা তিনি।

পুলিশের দাবি, নবমীর রাতে মত্ত অবস্থায় হেলমেটে ছাড়াই দ্রুত গতিতে বাইক চালাচ্ছিলেন সুব্রত। সেইসময়ই ভবানীপুর এলাকায় ওই বাইক আরোহীকে আটকান কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্ট অতনু নন্দী। আর তাতেই উত্তেজিত হয়ে ওঠেন ওই বাইক আরোহী। ট্রাফিক সার্জেন্টকে বেধড়ক মারধর করেন ওই ব্যক্তি। ভবানীপুর এলাকায় দায়িত্বে থাকা ওই সার্জেন্টকে বাঁচাতে আবার এগিয়ে যান এক পুলিশকর্মী। সেইসময় ওই পুলিশকর্মীকেও তিনি মারধর করেন বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুনঃ মা দুর্গার বিসর্জনে গিয়ে মর্মান্তিক দুর্ঘটনার কবলে ছত্তিশগড়, প্রায় ২০ জনকে পিষে দিল গাড়ি

এমনকী অয়্যারলেস সেটও ছিনিয়ে নেন সুব্রত। সেই সময় পরিস্থিতি সামাল দিতে আরও এক সার্জেন্ট ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছন। এরপর তাঁর উর্দিও ছিঁড়ে দেয় ধৃত ওই বাইক আরোহী। এর কিছুক্ষণ পরেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন পুলিশ। এবং অভিযুক্ত সুব্রত দাসকে গ্রেফতারও করা হয়। ইতিমধ্যেই তার মোটরবাইকটিকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, আজ শুক্রবারই ধৃত বাইক আরোহীকে আদালতে তোলা হবে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here