নিউ মার্কেটের গেটে করোনা প্রতিরোধক টানেল বসাল বেসরকারি সংস্থা

0
78

শুভম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতাঃ

লকডাউন উঠে গেলে ফের সাধারণ মানুষ ভিড় করবেন বাজার-শপিং মলে। কিন্তু তখনও তাদের শরীরে যাতে করোনা ভাইরাস বাসা বাঁধতে না পারে, তার জন্য নিউ মার্কেটের গেটে এক বিশেষ ধরনের টানেল বসাল বেসরকারি সংস্থা। হাইড্রোজেন পারক্সাইড সম্বলিত এই টানেল দিয়ে মানুষ ঢুকলে এবং বেরোলে তাদের আর কোন ভাবেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না বলে দাবি ওই সংস্থার।

people |newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

প্রসঙ্গত, মারণ নোভেল করোনা ভাইরাস মূলত ছড়িয়ে পড়ে এক মানুষের শরীর থেকে আরেক মানুষের শরীরে ড্রপলেটের মাধ্যমে। ড্রপলেট হল হাঁচি, কাশি বা কথা বলার সময় মুখ থেকে ছিটকে আসা জলকণা। মানুষের শরীরের বাইরেও এই জীবানু ১২ ঘন্টা পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে।

marks |newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

এই অবস্থায় বাজারের দোকানদারদের আশা, লকডাউন উঠে গেলে ফের মানুষ আবারও ধীরে ধীরে ফিরবে স্বাভাবিক ছন্দে। সেই সময় যদি আবারও কোনও ভাবে এই মারণ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে তখন কী হবে! এই কথা মাথায় রেখেই কলকাতা নিউমার্কেটে বসানো হল করোনা প্রতিরোধক যান্ত্রিক টানেল।

আরও পড়ুনঃ সব থানা, ব্যারাক ও পুলিশি অফিস জীবাণুমুক্ত করার কাজ শুরু কলকাতা পুলিশের

কী এই যান্ত্রিক টানেল? জানা গিয়েছে, করোনা প্রতিরোধক যান্ত্রিক টানেল অনেকটা মেটাল ডিটেক্টর ডোরের মত হলেও বেশ কিছুটা লম্বা। আর যখন কেউ এই দরজা দিয়ে ভেতরে ঢুকবেন বা বাইরে বার হবেন তখন ওপর থেকে নেমে আসবে গ্যাসীয় রাসায়নিক ‘হাইড্রোজেন পারক্সাইড (H2O2) যা শরীরের বাইরে থাকা যে কোনও জীবাণুকে মেরে দেবে। কিন্তু এতে ওই ব্যক্তির কোনও ক্ষতি হবে না। এটা অনেকটা ‘ফুল বডি স্যানিটাইজেশন’-এর মত।

যে বেসরকারি সংস্থা নিউ মার্কেটের একটি গেটে এই যন্ত্র বসিয়েছে তাঁদের দাবি, এই যন্ত্র ও রাসায়নিকটি রীতিমত পরীক্ষিত। ইতিমধ্যেই দক্ষিণ ভারতের একাধিক রাজ্যে এই যন্ত্র বসেছে। তাই তাঁদের আশা কলকাতাতেও এই যন্ত্র মানুষকে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা দিতে পারবে। তবে সংস্থাটির দাবি, কোনও ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাস থাকলে এই টানেল দিয়ে যাওয়ার সময় নিংসৃত গ্যাস তার গলার ভিতর পর্যন্ত মারণ ভাইরাসকে মারতে সক্ষম হবে। কিন্তু যদি এই মারণ ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তির ফুসফুসে পৌঁছে যায়, তাহলে সে ক্ষেত্রে ওই ব্যক্তিকে পরিশুদ্ধ করা সম্ভব হবে না। তবে সে ক্ষেত্রে অতটা আক্রান্ত হলে সেরকম অসুস্থ ব্যক্তির বাজারে ঘুরে বেড়ানোর সম্ভাবনা বা শারীরিক সামর্থ্য কোনওটাই থাকবে না বলেই দাবি ওই সংস্থার।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here