উপনির্বাচনের আগেই বিজেপি রাজ্য সভাপতির বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার অভিযোগ ঝাড়খন্ডে

0
34

নিজস্ব সংবাদদাতা, ওয়েব ডেস্কঃ

ঝাড়খণ্ডের বিজেপি সভাপতি দীপক প্রকাশের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা দায়ের হল। জেএমএম-কংগ্রেস ও আরজেডি জোট সরকার ফেলে দেওয়ার চক্রান্তের ষড়যন্ত্রের অভিযোগে ঝাড়খণ্ডের বিজেপি সভাপতি তথা রাজ্যসভার সাংসদ দীপক প্রকাশের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, দুমকার কংগ্রেস সভাপতি শ্যামল কিশোর সিংয়ের অভিযোগের ভিত্তিতেই এই মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Deepak Prakash | newsfront.co
দীপক প্রকাশ

তাঁকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করুক পুলিশ, রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন দীপক প্রকাশ। তিনি বলেছেন, সাহস থাকলে হেমন্ত সোরেন যেন তাঁকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করে দেখান। আপাতত এই ঘটনা নিয়ে উত্তাল ঝাড়খণ্ডের রাজনীতি।

গত শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দীপক প্রসাদ বলেছিলেন, আগামী দু-তিন মাসের মধ্যেই হেমন্ত সোরেন সরকার পড়ে যাবে। বিজেপি সরকার গঠন করবে। বিজেপি সাংসদের এই মন্তব্যেই ষড়যন্ত্রের ইঙ্গিত পেয়েছে শাসক দল কংগ্রেস ও জেএমএম নেতৃত্ব। সরকার ফেলতে বিজেপি মরিয়া বলে অভিযোগ তাঁদের।

আরও পড়ুনঃ ‘তৃণমূলে কোনো ভদ্রলোক আর থাকতে পারবে না’- খড়্গপুরে বললেন দিলীপ ঘোষ

দীপক প্রসাদের বিরুদ্ধে দেশদ্রেহিতার মামলা দায়ের করেছেন দুমকার কংগ্রেস প্রধান। দুমকার পুলিশ সুপার অম্বর লাখরা জানান, নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ১২৪-এ (রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ), ১২০-বি (শান্তিভঙ্গের উস্কানি), ৫০৪ (অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র), ৫০৬ (অপরাধমূলক ভয় প্রদর্শন) এই কয়টি ধারায় দীপক প্রকাশের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ রাজনীতি করছেন রাজ্যপাল, দাবি গৌতমের

অন্যদিকে, ঝাড়খণ্ডের বিজেপি সভাপতি দীপক প্রকাশের অভিযোগ, ৩রা নভেম্বর দুমকা ও বেরমোতে উপনির্বাচন, সেখানে জেএমএম-কংগ্রেস প্রার্থীর হারের প্রভুত সম্ভাবনা। সেই কারণেই এই ধরণের পদক্ষেপ করছে সরকার পক্ষ। তাঁর দাবি, জেএমএম-কংগ্রেস নির্বাচন কমিশনের উপর আস্থা রাখতে পারছেনা, তাই কমিশনে যাওয়ার বদলে পুলিশ প্রশাসনকে দিয়ে এখন বিরোধীদের দমানোর চেষ্টা করছে।

আরও পড়ুনঃ বয়স কম আগুন নিয়ে খেলবেন না! শিলিগুড়িতে হুঁশিয়ারি ধনকড়ের

জেএমএম মুখপাত্র সুপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, ‘নির্বাচিত সরকার ফেলে দিয়ে গণতন্ত্রকে হত্যা করার বিজেপির যে চক্রান্ত, তা কোনোভাবেই সফল হতে দেবেন না তাঁরা। দুমকা থানায় অভিযোগ দায়েরেরে সময় কংগ্রেস পদাধিকারীদের সঙ্গে ছিলেন সুপ্রিয় ভট্টাচার্য।

এই উপনির্বাচনে দুমকা বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী প্রাক্তন মন্ত্রী লুইস মারাণ্ডির বিরুদ্ধে লড়ছেন জেএমএম প্রার্থী বসন্ত সোরেন, যিনি মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের ভাই। স্বাভাবিক ভাবেই এই কেন্দ্র দুই দলের কাছেই সম্মান রক্ষার লড়াই। বেরমোতে কংগ্রেসের অনুর সিংয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন বিজেপির যোগেশ্বর মাহাতো।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here