‘পাগড়ি বলেই খুলে নিয়েছে, গোল টুপি হলে খুলতে পারত’ – বিতর্কিত মন্তব্য দিলীপের

0
118

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতাঃ

‘পাগড়ি বলেই খুলে নিয়েছে, গোল টুপি হলে খুলতে পারত?’ নবান্ন অভিযানে বিজেপির মিছিল থেকে আগ্নেয়াস্ত্র-সহ গ্রেফতার হওয়া বলবিন্দর সিং’র পাগড়ি খুলে যাওয়া নিয়ে ফের বিতর্কিত মন্তব্য বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের।

dilip ghosh | newsfront.co
দিলীপ ঘোষ। ফাইল চিত্র

বিজেপির নবান্ন অভিযানের মিছিল থেকে আগ্নেয়াস্ত্র-সহ বলবিন্দর সিং নামে এক শিখ যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ, গ্রেফতারের সময় ধস্তাধস্তিতে তার পাগড়ি খুলে যায়; আপাতত সেটিই বিজেপির তুরুপের তাস এখন। শিখ সম্প্রদায়ভুক্ত বলবিন্দরের পাগড়ি পুলিশ টেনে খুলে দিয়েছে বলে অভিযোগ।

এ প্রসঙ্গে আবার একটি বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মমতা সরকারের বিরুদ্ধে বিশেষ সম্প্রদায়ের প্রতি ‘তোষণে’র অভিযোগ তুলে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন পুলিশকে।

আরও পড়ুনঃ হাথরাস কাণ্ডের প্রতিবাদে কালো পতাকা হাতে বালুরঘাটে ধিক্কার মিছিল যুব তৃণমূলের

শনিবার বর্ধমানে দিলীপ ঘোষ বলেন, তাঁদের দলীয় নেতা প্রিয়াংশু পাণ্ডের ব্যক্তিগত দেহরক্ষী বলবিন্দর সিং। দেহরক্ষীকে গ্রেফতার করা আইন বিরুদ্ধ। তার ওপর তাকে যেভাবে পুলিশ অত্যাচার করেছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয়।

তিনি চ্যালেঞ্জ জানান পুলিশকে- “যদি গোল টুপি মাথায় থাকত তবে পুলিশ কি গ্রেফতার করতে পারত? বলবিন্দর একজন শিখ বলেই পুলিশ তার পাগড়ি খুলে দিয়েছে। আমরা আইন মানি বলেই এসব তোষণের রাজনীতি করা সম্ভব হচ্ছে।”

গত বৃহস্পতিবার সাত দফা দাবিতে নবান্ন অভিযান করে বিজেপি। গেরুয়া বাহিনীর এই কর্মসূচি ঘিরে যথেষ্ট ঝামেলার সৃষ্টি হয়। আন্দোনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ কিছু ক্ষেত্রে লাঠি চার্জ করে, কোথাও টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটাতে হয় আবার কোথাও জল কামানের ব্যবহার করতে হয় পুলিশকে। তার মধ্যেই হাওড়া ময়দান অঞ্চলের মিছিলে এক ব্যক্তির থেকে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানায় ধৃত ব্যক্তির নাম বলবিন্দর সিং।

আরও পড়ুনঃ আঁটোসাঁটো নিয়ম বিধিতে,করোনা আবহেই দুর্গোৎসবের প্রস্তুতি তুঙ্গে পাঁশকুড়ায়

বিজেপি নেতৃত্ব দাবি করেন ওই আগ্নেয়াস্ত্রটির লাইসেন্স আছে, যদিও হাওড়া সিটি পুলিশের দাবি, ওই আগ্নেয়াস্ত্রটির লাইসেন্স জম্মু-কাশ্মীরের রাজৌরির। যা জেলার বাইরে নিয়ে যাওয়া বেআইনি। সেই হিসেবে বলবিন্দর ‘বেআইনি’ আগ্নেয়াস্ত্র নিয়েই সেদিন মিছিলে উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ যখন বলবিন্দর সিংকে গ্রেফতার করে সেই সময় ধস্তাধস্তিতে তার পাগড়িটি খুলে যায়। তৎক্ষনাৎ বিজেপির পক্ষ থেকে এই ইস্যুতে সাম্প্রদায়িক রং দেওয়া শুরু হয়ে যায়।
শুক্রবার রাতেই পুলিশের তরফে ভিডিওগ্রাফি সহ জানানো হয়েছে, ধরপাকড়ের সময় ধস্তাধস্তিতেই বলবিন্দরের পাগড়ি খুলে গিয়েছিল।

সেই ‘পাগড়ি’ আর গোল টুপির তুলনা টেনে বিতর্কিত মন্তব্য করে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ অকারণেই জল ঘোলা করার চেষ্টা করছেন বলেই অনেকের ধারনা।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here