অগ্রহায়ণের প্রথম দিনে অভিযান চালিয়ে সাত নাবালিকার বিয়ে রুখল চাইল্ড লাইন

0
38

নিজস্ব সংবাদদাতা, বালুরঘাটঃ

একদিনে একসঙ্গে সাত নাবালিকার বিয়ে রুখলো করলো দক্ষিণ দিনাজপুর চাইল্ড লাইন।ঘটনার প্রকাশ এই যে,অগ্রহায়নের শুরুতেই সামাজিক বিয়ের উৎসব শুরু হয়েছে।এর মধ্যেই বিভিন্ন প্রান্তে নাবালিকার বিয়ে চলছে বলে খবর আসে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা চাইল্ড লাইনে।সেই অনুযায়ী ১ অগ্রহায়ন প্রথম বিয়ের তারিখে হানা দেওয়া হয় সাতটি জায়গায়।

বিয়ে রুখতে চাইল্ড লাইনের প্রতিনিধিরা নাবালিকার বাড়িতে।নিজস্ব চিত্র

যৌথ অভিযানে ছিলো চাইল্ড লাইন,জেলা বা ব্লক প্রশাসন,জেলা আইনি পরিষেবা কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশ। সাতটির মধ্যে চারটি নাবালিকার বিয়ে আটকানো হয় শুধু কুশমন্ডি ব্লকেই।অন্য তিনটির মধ্যে একটি বালুরঘাটে,একটি কুমারগঞ্জে এবং একটি গঙ্গারামপুরে।কুমারগঞ্জের উত্তর করনজি বছর পনেরোর নাবালিকার বিয়ে দেওয়া হচ্ছিলো। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নাবালিকাটি স্থানীয় ঢাকঢোল উচ্চ বিদ্যালয়ে নবম শ্রেনীতে পরত।ওই ব্লকেরই কাশিয়াডাংগা উথলিয়া এলাকার বছর চোদ্দর অষ্টম শ্রেনীর নাবালিকা ছাত্রীর বিয়ে দেওয়া হচ্ছিল।আবার বিয়ে হতে যাওয়া কুশমন্ডির শিয়ালা বাসিন্দা দুই নবালিকার মধ্যে একজনের বয়স তেরো ও আরেক জনের সতেরো।তারা দুই জনের স্থানীয় কুশমন্ডি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম ও দ্বাদশ শ্রেনীতে পড়ে। পাশাপাশি গঙ্গারামপুর ব্লকের জালালপুরের বছর ষোলোর, কুমারগঞ্জের দেবীপুরের বছর সতেরো এবং বালুরঘাট ডাকবাংলো পাড়ার বছর পরেনোর নাবালিকার বিয়ে রোধ করা হয়।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা চাইল্ড লাইনের কো-অর্ডিনেটর সুরজ দাশ বলেন,একটা বড় সাফল্য তাদের।শুধু অবিভাবকদের সচেতন করায় নয়, স্কুল ও এলাকা ভিত্তিক মেয়েদের সচেতন করতে নিয়মিত ক্যাম্প করার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন সুরজ বাবু।

আরও পড়ুনঃ গঙ্গার উপর কালনা-শান্তিপুর সেতু নির্মানে জমি অধিগ্রহণের সূচনা

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485