সৌমিত্রর অজান্তেই জেলা যুব সভাপতিদের পদ বাতিল করল দিলীপ ঘোষ

0
146

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতাঃ

দিলীপ ঘোষ বাতিল করে দিয়েছেন জেলা যুব মোর্চার সভাপতিদের পদ, জানেনই না সৌমিত্র। প্রকট গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব। বিজেপির যুব মোর্চার দায়িত্ব সৌমিত্র খাঁ নেওয়ার পর থেকেই বিতর্ক তৈরি হয় রাজ্য বিজেপিতে। বঙ্গ বিজেপির গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব আরও স্পষ্ট হল।

Dilip Ghosh | newsfront.co
দিলীপ ঘোষ, সৌমিত্র খাঁ। ফাইল চিত্র

ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার সব জেলা সভাপতি ও কমিটি বাতিল করা হল,শুক্রবার ঘোষণা করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এ বিষয়ে পরবর্তী বিবৃতি না আসা পর্যন্ত বিজেপির জেলা সভাপতিরাই দলের যুব মোর্চার দায়িত্ব সামলাবেন বলে জানান তিনি।

Announcement | newsfront.co

বিজেপির রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ জানান, দলের এই সিদ্ধান্ত সম্পর্কে তিনি কিছুই জানতেন না। ২০২১ বাংলায় আসন্ন বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে রাজ্য বিজেপি ও তার বিভিন্ন মোর্চার সংগঠনে কিছু পরিবর্তন করা হয়। যুব মোর্চার দায়িত্ব দেওয়া হয় বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁকে।

আরও পড়ুনঃ ‘রাজনীতি মিলে গেল, সুবিচার পেলাম না’, গুরুং-তৃণমূল মেলবন্ধনে ক্ষোভ অমিতাভ মালিকের বাবার

সৌমিত্র খাঁ এই পদ পাওয়ার পর থেকেই বিতর্ক তৈরি হয় দলের ভেতর। আভাস মিলছিল গোষ্ঠী কোন্দলের। দিলীপ ঘোষের এদিনের ঘোষণার পিছনেও রাজ্য বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের তত্ত্বই কার্যকর হয়েছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

বিজেপির যুব মোর্চার সভাপতি পদ পাওয়ার পরে জেলায় যুব মোর্চা সভাপতিদের নামের তালিকা প্রকাশ করেও প্রত্যাহার করতে হয় সৌমিত্রকে। তখন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছিলেন, ওই তালিকা বৈধ নয়।

আরও পড়ুনঃ বিজেপি আয়োজিত বিতর্কিত পুজোর অনুষ্ঠানে ডোনার নৃত্যানুষ্ঠান, সৌরভকে ঘিরে জল্পনা

সৌমিত্র অবশ্য দাবি করেছিলেন, দিলীপ ঘোষকে জানিয়েই এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সংগঠনের সদস্যদের দাবি করেছিলেন, তালিকা তৈরিতে গরমিল হয়েছিল। ১৫টি জেলা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় পুরনো নেতাদের। তালিকা তৈরিতে যুব মোর্চার রাজ্য কমিটির মতামত নেওয়াও হয়নি।

দিলীপ ঘোষ সেই বিতর্কের মাঝে বলেছিলেন, যুব মোর্চার রাজ্য কমিটিই তৈরি হল না। জেলা সভাপতিদের নাম চূড়ান্ত হয় কী করে? পরে সেই বিতর্কের মাঝেই রাজ্য যুব মোর্চার জেলা সভাপতি ও কমিটি সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হয়েছিল।

অগাস্টের শেষদিকে এই বিতর্ক থেকেই স্পষ্ট হয়েছিল রাজ্য বিজেপি ও তার যুব সংগঠনের নেতৃত্বের মধ্যে টানাপোড়েন রয়েছে। কিন্তু, শুক্রবারের দিলীপ ঘোষের ঘোষণার পর সৌমিত্র খাঁ সরাসরি জানিয়েছেন তিনি এ বিষয়ে কিছুই জানতেন না। যা থেকেই স্পষ্ট যে,এটি শুধু টানাপোড়েন নয়, ক্রমশ বড় আকার ধারণ করেছে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here