ফেস রিকগনিশন বন্ধ করছে ফেসবুক, বিলিয়ন মানুষের ডেটা মুছে ফেলার সিদ্ধান্ত

0
29

মোহনা বিশ্বাস, ওয়েব ডেস্কঃ

গোপনীয়তা নিয়ে উদ্বেগের কারণে ফেসিয়াল রিকগনিশন সিস্টেম বন্ধ করে দিচ্ছে ফেসবুক। মুছে ফেলছে বিলিয়ন মানুষের ফেসপ্রিন্ট। মঙ্গলবার তাদের এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে ফেসবুকের প্রধান কোম্পানি ‘মেটা’। সারা বিশ্বে প্রথম সারিতে থাকা এই সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্কের তরফ থেকে এই ঘোষণা করা হয়েছে, কারণ অভ্যন্তরীণ নথিগুলির রিম সহ সাংবাদিক, আইন প্রণেতা এবং মার্কিন নিয়ন্ত্রকদের কাছে ফাঁস হয়ে যাওয়ায় ফেসবুক এখন সংকটের মুখে। বর্তমানে সেই সংকটগুলির একটির সাথে লড়াই করছে ফেসবুক।

Facebook

এ প্রসঙ্গে ফেসবুকের মূল কোম্পানি ‘মেটা’ একটি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, যে সমাজে মুখের শনাক্তকরণ প্রযুক্তির স্থান সম্পর্কে অনেক উদ্বেগ রয়েছে এবং নিয়ন্ত্রকরা এখনও এটির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণকারী নিয়মগুলির একটি সুস্পষ্ট সেট প্রদানের প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে। ‘মেটা’-র তরফ থেকে ওই বিবৃতিতে আরও জানানো হয়েছে, “এখন ফেসবুক যে অনিশ্চয়তার মধ্যে দিয়ে চলছে, এর মধ্যেও আমরা বিশ্বাস করি যে মুখের স্বীকৃতির ব্যবহারকে ব্যবহারের ক্ষেত্রে সংকীর্ণ সেটে সীমাবদ্ধ করাই শ্রেয়।”

ফেসবুকের এই পরিবর্তনের খবর আগেই পাওয়া গিয়েছিল। কিন্তু সেই পরিবর্তনগুলি কখন কার্যকর হবে, সে বিষয়ে কারোরই জানা ছিল না। তবে এই পরিবর্তনের পর কোম্পানি এটা ভালোভাবে বুঝতে পারবে যে, ফেসবুকের দৈনিক ব্যবহারকারীদের মধ্যে এক তৃতীয়াংশেরও বেশি মানুষ ফেসিয়াল রিকগনিশন সিস্টেম ব্যবহার করা বেছে নিয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ জলবায়ু সম্মেলনে গুতেরেসকে আলিঙ্গন মাস্কবিহীন মোদির, তির্যক মন্তব্য ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের

মেটা যে বিবৃতিটি প্রকাশ করেছে, তাতে বলা হয়েছে, ফেসবুকের ফেসিয়াল রিকগনিশন সিস্টেমটি বন্ধ করার ফলে এক বিলিয়নেরও বেশি মানুষের ব্যক্তিগত মুখের স্বীকৃতি টেমপ্লেট মুছে ফেলা হবে।

সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক বর্তমানে একটি হুইসেলব্লোয়ার সংকটের সাথে লড়াই করছে। এক কেলেঙ্কারিতে জর্জরিত সোশ্যাল নেটওয়ার্কের অতীতকে তার ভবিষ্যতের জন্য ভার্চুয়াল রিয়েলিটির দৃষ্টিভঙ্গিতে নিয়ে আসতেই ফেসবুক তার মূল কোম্পানির নাম ‘মেটা’ তে পরিবর্তন করেছে।

আরও পড়ুনঃ টানা চার জয়ে আসরে প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনালে পৌঁছাল বাবর আজমের দল

মেটা কোম্পানির ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপ সারা বিশ্ব জুড়ে কোটি কোটি মানুষ ব্যবহার করে। তাদের নাম রিব্র্যান্ডিংয়ের অধীনে রাখার বিষয়টিকে সমালোচকরা প্ল্যাটফর্মের কর্মহীনতা থেকে বিভ্রান্ত করার প্রচেষ্টা বলে মনে করছেন।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here