সৎকার করতে গিয়ে নিখোঁজ ব্যক্তির দেহ উদ্ধার

0
61

শ্যামল রায়,নবদ্বীপঃ

শনিবার সকাল পাঁচটা নাগাদ নবদ্বীপ শ্মশান ঘাট সংলগ্ন কর্ম মন্দির ক্লাবের মাঠের পাশে এক ভেড়ি থেকে ভেসে ওঠা মৃতদেহ উদ্ধার করল পুলিশ।
নবদ্বীপ থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে যে মৃত ব্যক্তির নাম সুশীল মন্ডল (৪৩)।বাড়ি নবদ্বীপ পৌর সভার ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইদিলপুরে।
এদিন মৃতদেহটি উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় কৃষ্ণনগর শক্তিনগর হাসপাতালে। মৃতের পরিবারের তরফ থেকে নবদ্বীপ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে এই মৃত্যু স্বাভাবিক নয়। অভিযোগ যে মেরে ফেলা হয়েছে।
মৃতের ভাই সুরজিৎ মন্ডল নবদ্বীপ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
পরিবারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে প্রতিবেশী ভর পাড়ার বাবু ঘোষের মৃত্যু হলে শ্মশান ঘাটে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয় ওই সুশীল মন্ডলকে।সুশীল মন্ডলের ছেলে সুব্রত মন্ডলের বন্ধু মঙ্গল মন্ডল সুশীল মন্ডলকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যান।শ্মশান ঘাটে অনেক রাত হচ্ছে বলে মৃতের স্ত্রী দিপালী মন্ডল মঙ্গলকে ফোন করে জানতে পারে যে কোন রকম সমস্যা হবে না ঠিক মৃতদেহ সৎকার কাজ শেষ হলে তিনি বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে আসবেন সুশীলকে। অথচ ওই দিন রাত এক টার পরে আর কোন যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি সুশীল মন্ডলের সাথে।পরের দিন খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান মেলেনি।অথচ যাদের সাথে মৃতদেহ সৎকার করতে গেলেন তারাও মুখে কুলুপ এঁটে বসে থাকেন।সুশীল মন্ডল কোথায় হারিয়ে গেছে কি হয়েছে এর কোন সদুত্তর মেলে না ওই সৎকার করতে যাওয়া শ্মশান যাত্রী দের কাছ থেকে। পরিবারের সদস্যদের দাবি সৎকার করতে গিয়ে শ্মশান ঘাটেই চরম অশান্তি বাধেবলে অভিযোগ।মৃতের দেহে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে পরিবারের সদস্যদের দাবি।তাই এই মৃত্যু স্বাভাবিক নয় অস্বাভাবিকভাবে মৃত্যু হয়েছে বলে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তাদের পরিবারের তরফ থেকে।
সুশীল মণ্ডল পেশায় ছিলেন হকার।গ্রামে গ্রামে চাদর সহ নানান ধরনের রেডিমেড জামা কাপড় বিক্রি করে বেড়াতেন।অভাবী সংসার।এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে তার।
তবে আরো জানা গিয়েছে যে মৃত সুশীল মন্ডল মাঝেমধ্যেই মদ সেবন করার ফলে দিশেহারা হয়ে পড়তেন। অনেকেই মনে করছেন যে মদ্যপ অবস্থায় পুকুরে বা ভেড়িতে পড়ে গিয়ে মৃত্যু হয় নি তো? এ প্রশ্ন উড়িয়ে দিচ্ছেন না এলাকার বাসিন্দারা।

আরও পড়ুনঃ রেললাইনের ধারে অজ্ঞাত পরিচিত মহিলার দেহ উদ্ধার
তবে এই মৃত্যু ঘিরে রহস্য দানা বাঁধছে বলে মনে করছেন অনেকেই।
তবে পুলিশ সূত্রে খবর ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাচ্ছে না।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here