শুনানি আবার ২০১৮ সালে-কোর্টের অর্ডার সত্ত্বেও মাদ্রাসায় নিয়োগে অনীহা কেন?

0
3746

আনিসুর রহমান, কোলকাতা:

আজ মাদ্রাসা সার্ভিস সংক্রান্ত মামলার শুনানি ছিল সুপ্রিমকোর্টৈ।বিচারপতি অরুণ মিশ্রের বেঞ্চ মামলাটিকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন।তাই এই মামলা আবার ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে শুনবেন।

কেস চলাকালীন কমিসন  লিভগ্ৰান্ট পেলেও, কমিসনের একজেদী,না কাজ করার মানসিকতা এবং সুপ্রিমকোর্ট কমিসনের বৈধ্যতা সংক্রান্ত মামলায় কমিসন শরিক না হওয়ায় পরিস্হতি জটিল হয়ে পড়ে।পরে ১লা আগস্ট ২০১৬ সালে এই মামলায় শুনানিতে সুপ্রিমকোর্ট কমিসনকে কাজ চালিয়ে যাবার জন্য সরকারি আইনজীবিকে পরার্মশ প্রদান করেন। সেইমত রেজাল্ট হয় ২০১৬ সালের ৫ই সেপ্টেম্বর।কিন্তু এক বছর অতিক্রান্ত হওয়া সত্ত্বেও ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ায় মহামান্য হাইকোর্টে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে মামলা করেন ষষ্ঠ SLST পাশ করা মহ: জাবিউল্লাহ।

সেই মামলায় শুনানির পর বিচারপতি অরিজিৎ ব্যানার্জী মন্তব্য করেন যে- এ যাবৎ সুপ্রিমকোর্টে কমিসনের পরীক্ষার সিলেকসন প্রক্রিয়ার উপর কোন স্হগিতাগাদেশ দেয়নি এবং পূর্বে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিসন বেঞ্চ ২০১৪সালে 6th SLSTপরীক্ষা নেওয়ার অনুমতি দেয়।সুতারাং কমিসনের কাজ চালিয়ে যাবার আইনগত বাধা নেই । তিনি কমিশনকে সিলেকশন প্রক্রিয়া শুরু করার অর্ডার দেন সেপ্টেম্বর মাসের ১১ তারিখ। সেইমত, কমিশনের চেয়ারম্যান আশ্বাস দেন ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরু করার। কিন্তু প্রায় এক মাস হতে চলছে, কোনও নোটিফিকেশন হয়নি।এখন তিনি নবান্নের দোহাই দিচ্ছেন। তাই ক্ষোভ বাড়ছে পাশ করা প্রায় চার হাজার ক‍্যান্ডিডেট ও পশ্চিমবঙ্গের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের।কারণ শিক্ষকের অভাবে মাদ্রাসা শিক্ষা ব‍্যাবস্থা ধ্বংসের মুখে । বিশিষ্টমহলের মত সরকার কোনো ভাবেই দায়িত্ব এড়িয়ে যেতে পারেনা, যেখানে মাদ্রাসা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে মুখ‍্যমন্ত্রী নিজেই।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here