কলার টিউনে নিজের কণ্ঠস্বর অবাক করেছিল জসলিনকেও

0
121

মোহনা বিশ্বাস, ওয়েব ডেস্কঃ

ধরুন, আপনি কাউকে ফোন করার জন্য নম্বর ডায়েল করলেন আর সঙ্গে সঙ্গে তাঁর ফোনের কলার টিউনে আপনি নিজের কণ্ঠ শুনতে পেলেন। আর একই ঘটনা যদি আপনার সঙ্গে বার বার ঘটে। তাহলে কেমন লাগবে, একবার ভেবে দেখুন তো। ঠিক এরকম ঘটনাই ঘটছে আমাদের দেশের মেয়ে তথা প্রাক্তন ক্রীড়া সাংবাদিক জসলিন ভাল্লার সঙ্গে। যেদিন থেকে দেশজুড়ে লকডাউন শুরু হয়েছে সেদিন থেকেই ফোন করলেই আগে ফোনের কলার টিউনে একজন মহিলার কণ্ঠে করোনার সতর্কবার্তা শোনা যাচ্ছে।

Jasleen Bhalla | newsfront.co
জসলিন ভাল্লা। সংবাদ চিত্র

“করোনাভাইরাস সে আজ পুরা দেশ লড় রহা হে, পার ইয়াদ রহে হামে বিমারি সে লড়না হে, বিমার সে নেহি।” জরুরী প্রয়োজনে ফোন করতে গেলেও আগে ৩০ সেকেন্ডের এই করোনা সতর্কবার্তা শুনতে হচ্ছে সকলকে। দরকারের সময় এই মহিলা কণ্ঠ ইতিমধ্যে অনেকেরই বিরক্তির কারণ হয়ে উঠেছে। আবার অনেকেই ভাবছেন কণ্ঠটি কার, তা যদি জানা যেত। হ্যাঁ, অবশেষে জানা গেল। খবরের শিরোনামে উঠে এলেন জসলিন ভাল্লা।

ফোনের কলার টিউনে আমরা যে মহিলা কণ্ঠটি শুনতে পাই সেটা আসলে প্রাক্তন ক্রীড়া সাংবাদিক জসলিন ভাল্লার কণ্ঠ। সম্প্রতি তাঁর ভার্চুয়াল সাক্ষাৎকারের একটি ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই মুহূর্তের মধ্যে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

আরও পড়ুনঃ ৯ দিনে ৫ টাকা: চড়চড়িয়ে বেড়েই চলেছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম

জসলিন সাংবাদিকতা থেকে বিদায় নিয়েছেন বেশ কয়েক বছর আগেই। এরপর বিগত ১০ বছর ধরে ভয়েস ওভার আর্টিস্ট হিসাবে কাজ করছেন। শুধুমাত্র ফোনের কলার টিউনে নয়, জসলিনের গলার আওয়াজ শুনতে পাওয়া যায় ইন্ডিগোর ফ্লাইটে, দিল্লির মেট্রোয়, এয়ারটেল, ডিসকভারির মতো বহু সংস্থার ক্যাম্পেনেও। এমনকি ভারতীয় রেলেও তাঁর আওয়াজ শুনতে পান যাত্রীরা।

Jasleen Bhalla | newsfront.co
সংবাদ চিত্র

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের নির্দেশ মতো প্রতিটি টেলিকম কোম্পানিকে বাধ্যতামূলকভাবে ৩০ সেকেন্ডের কোভিড-১৯ প্রতিরোধে সচতনতা প্রচারে কলার টিউন ব্যবহার করার কথা বলেছিলেন টেলিকমিউনিকেশন মন্ত্রক। এরপরই দেশের সমস্ত বড় টেলিকম কোম্পানিগুলো করোনা সতর্কবার্তার এই কলার টিউন ব্যবহার করতে শুরু করে।

আরও পড়ুনঃ করোনা পরিস্থিতিঃ ১৫ ই জুন সকাল

প্রথম প্রথম নিজের আওয়াজ নিজে শুনতে অদ্ভুত লাগতো ঠিকই তবে এই আওয়াজ শুনে এখন নিজেই বিরক্ত হয়ে যান জসলিন। তাহলে জেনে গেলেন তো, আপনার বিরক্তের কারণ যে মহিলা কণ্ঠটি সেটা আসলে জসলিন ভাল্লার কণ্ঠ। তবে এই তথ্যটি জানলেও আপনি কিন্তু ওই কলার টিউনের হাত থেকে এখনই মুক্তি পাচ্ছেন না। করোনা যতদিন আমাদের দেশে বিরাজ করবে আপনাকেও ততদিন ফোনের কলার টিউনে জসলিনের কণ্ঠে করোনা সতর্কবার্তা শুনতেই হবে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here