এত বছর তাঁবুতে দিন কেটেছে, এখন থেকে মন্দিরে থাকবেন রামলালাঃ মোদী

0
39

নিজস্ব সংবাদদাতা, ওয়েব ডেস্কঃ

দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার অবসান হল আজ। অবশেষে বুধবার অযোধ্যায় রাম মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ভূমিপুজোয় অংশগ্রহণ করেন তিনি। “রাম আমাদের মনে আছেন। রাম সবার মধ্যে আছেন। প্রত্যেক জায়গায় ভিন্ন অবতারে প্রভু রামকে খুঁজে পাওয়া যাবে। প্রত্যেক চরিত্র রামের সঙ্গে সমার্থক। যাকে আমরা এককথায় ভারত বলি।” অযোধ্যার অনুষ্ঠানে এসে এমনটাই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

Narendra Modi | newsfront.co
ছবিঃ এএনআই

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বহুবছর ধরে তাঁবুতে থাকতে হয়েছে রামলালাকে। আজ থেকে উনি এই মহামন্দিরে থাকবেন। রামভক্তদের তৈরি করা এই মন্দিরই রাম জন্মভূমিকে উন্মুক্ত করল।”

তিনি আরও বলেন, “আমাদের মনে রাখতে হবে, যখনই মানুষ ভগবান রামের উপর আস্থা রেখেছেন, তখনই অগ্রগতি হয়েছে। যখনই আমরা কক্ষপথ থেকে বিচ্যুত হয়েছি, তখনই ধবংসের দরজা খুলে গিয়েছে। আমাদের প্রত্যেকর ভাবাবেগ মাথায় রাখতে হবে। সবার সমর্থন এবং আস্থা নিয়েই প্রত্যেকের উন্নয়ন করতে হবে।”

আরও পড়ুনঃ যুদ্ধ বিমান বিক্রির বিজ্ঞাপন ওএলএক্স-এ! দাম ১০ কোটি

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ভেঙে দেওয়া এবং তারপর গড়ার যে চক্র শতকের পর শতকধরে চলছিল, তা থেকে আজ মুক্ত হল রাম জন্মভূমি। আমাদের দায়িত্ব পালন, কীভাবে সেই দায়িত্ব পালন করা হবে, তা শিখিয়েছেন প্রভু শ্রীরাম। উনি আমাদের উপলব্ধি করার পথ দেখিয়েছেন। আমাদের রাম মন্দিরের সেই ইটগুলি আমাদের পারস্পরিক ভালোবাসা এবং ভ্রাতৃত্ববোধের মাধ্যমে জুড়তে হবে। রাম মন্দির তৈরির ফলে অযোধ্যার অর্থনৈতিক ভোল বদলে যাবে।”

১৯৯০ সালে রামমন্দির আন্দোলনের অন্যতম উদ্যোক্তা ছিলেন নরেন্দ্র মোদী। তিন দশক পর মন্দির নির্মাণের প্রথম ৪০ কেজি রুপোর ইট পুঁতে রামমন্দির নির্মাণের সূচনা করলেন তিনি। এই আচার শেষ হতেই অনুষ্ঠানস্থলে ভারত মাতা কি জয় আর হর হর মহাদেব স্লোগান ওঠে। বেজে ওঠে শ্লোক আর ভজন। মোট নয়টি শিলগ্রাম শিলার পুজো চলবে অযোধ্যার মন্দির নির্মাণস্থলে।

আরও পড়ুনঃ রামমন্দির নিয়ে নবান্নের নির্দেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সতর্ক রাজ্যের গোয়েন্দারা

এদিন অযোধ্যায় নেমে প্রথমে হনুমানগঢ়হি মন্দির পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী। দশ মিনিট ওখানে ছিলেন তিনি। সেখান থেকেই যান ভূমিপুজোর অনুষ্ঠানে। উপস্থিত ছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, আরএসএস প্রধান-সহ জমি মামলার অন্যতম আবেদনকারী ইকবাল আনসারি। দুই প্রবীণ বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আডবাণী আর মুরলীমনোহর জোশী ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে এই পুজো দেখেন। এই এই অনুষ্ঠানের মূল উদ্যোক্তা রাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্ট। এই মন্দির আন্দোলনে ভর করে জাতীয় রাজনীতিতে প্রাধান্য বাড়ে বিজেপির।

গত বছর নভেম্বরে বিতর্কিত ২.৭৭ একরের জমির মালিকানা দেওয়া হয় রামমন্দির ট্রাস্টকে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এই মামলার নিষ্পত্তি হয়। পঞ্জিকা মেনেই এদিনের অনুষ্ঠান। অযোধ্যা শহর ছাড়াও নিউ ইয়র্কে বড় পর্দায় দেখা যাচ্ছে এই অনুষ্ঠান। ১৬১ ফুট উঁচু এই মন্দিরের তিনটি তল। সোমবার প্রকাশিত নকশায় এমনটাই দেখা গিয়েছে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here