‘প্রধানমন্ত্রী ঘুমোতে পারছেন না!’ সিবিআই ডিরেক্টরের অপসারণ প্রসঙ্গে বললেন রাহুল গান্ধী

0
55

ওয়েবডেস্কঃ

“প্রধানমন্ত্রী ঘুমোতে পারছেন না ! তার মনের ভিতর সর্বদা ভয় সঞ্চারিত হচ্ছে ! ” প্রাক্তন সিবিআই ডিরেক্টর অলোক বর্মার অপসারণ প্রসঙ্গে টুইটারে মন্তব্য করলেন রাহুল গান্ধী।

https://twitter.com/RahulGandhi/status/1083412085042745347?s=19

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে দীর্ঘ ৭৭ দিন পর ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়ে আবারও প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পরিচালিত উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন সিলেক্ট কমিটির   দ্বারা অপসারিত হলেন সিবিআই’য়ের প্রাক্তন ডিরেক্টর অলোক বর্মা। অলোক বর্মার কথায় ” আমার বিরুদ্ধে যে সমস্ত অভিযোগ তোলা হয়েছে তা মিথ্যা , প্রমানহীন ও মূর্খতাপূর্ণ। ”

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন তিন সদস্য বিশিষ্ট উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ওই কমিটিতে ছিলেন বিচারপতি এ কে সিক্রি , বিরোধী নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজে। সূত্রের খবর বৈঠকে একমাত্র মল্লিকার্জুন খাড়গে এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছিলেন ।

গতকাল তার অপসারণ প্রসঙ্গে অলোক বর্মা বলেন ” ক্ষমতার অপব্যবহার করে যারা দেশের বৃহৎ দুর্নীতি করে, তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে থাকে সিবিআই সংস্থা। এই সংস্থার স্বাধীনতা থাকার দরকার । আমি সেটা রাখতে চেষ্টা করেছি। ”
প্রসঙ্গত , তিনি আর ও বলেন ” এমন একজন অফিসারের অভিযোগের ভিত্তিতে আমাকে সরানো হলো যিনি কিনা নিজেই অপরাধী। ”

উল্লেখ্য , মূল ঘটনার সূত্রপাত দুই উচ্চপদস্থ সিবিআই আধিকারিক রাকেশ আস্থানা এবং অলোক বর্মাকে কেন্দ্র করে। গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে রাকেশ আস্তানার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ঘুষ সহ বিপুল আর্থিক তছরুপের অভিযোগ তোলেন অলোক বর্মা সহ কয়েকজন বিশিষ্ট সিবিআই অফিসার।
অভিযোগের সত্যতা যাচাই না করে বলপূর্বক রাতারাতি এক নির্দেশিকায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন কমিটি ওই দু সিবিআই উচ্চপদস্থ আধিকারিক অলোক বর্মা এবং রাকেশ আস্তানাকে ছুটিতে পাঠায় গতবছর ২৩ অক্টোবর। গত বুধবার সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে দীর্ঘদিন পর আবারও ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়েছিলেন অলোক বর্মা ।

সিবিআই আধিকারিক অলোক বর্মার পুনর্বার অপসারণ নিয়ে সরব কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর সহ একাধিক বিরোধী নেতারা।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485