হরিশচন্দ্রপুরে বন্যা দুর্গতদের পাশে অধ্যাপক,গবেষক ও শিক্ষকগণ

0
2202

 

উমার ফারুক,নিউজ ফ্রন্ট,হরিশচন্দ্রপুর,২১আগস্ট:

বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার নিয়েছে, কাটছে একের পর এক বাঁধ। সমগ্র উত্তর মালদা এখন জলের তলায়।বন্যায় প্লাবিত গৃহহীন মানুষ বিভিন্ন স্কুল,মাদ্রাসা,ঈদগাহ,পাকা বাড়ির ছাদ ও উচু বাঁধের উপর আশ্রয় নিয়ে আছেন।দুর্গত মানুষরা অভিযোগ করছেন সরকারি ভাবে ত্রাণ ও পুনর্বাসনের কাজ সেভাবে হচ্ছে না।গতকাল রতুয়া ১নম্বর ব্লকে দুর্গত মানুষরা ত্রাণ না পাওয়ায় জয়েন্ট বিডিও মহম্মদ সালেহিনের উপর চড়াও হন।তবে বেসরকারি ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণের কাজ জোর কদমে চলছে।হরিরামপুর দেওয়ান আবদুল গণি কলেজের অধ্যাপক ড.মহম্মদ ইসমাইলের তৎপরতায় ধারাবাহিক ভাবে ত্রাণ বিতরণের কাজ হচ্ছে হরিশচন্দ্রপুরে।প্রতিদিন দুর্গত মানুষদের খাদ্যের প্যাকেট,পানীয় জল,ঔষধ ও কাপড় বিতরণ করা হচ্ছে।অধ্যাপক ইসমাইল বলেন-পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক,গবেষক, শিক্ষক ও আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্যোগে আমরা ত্রাণ ও উদ্ধার কাজ করছি।হরিশচন্দ্রপুরের জগন্নাথপুর,সিরিশবোনা, তালগাছি,কমলা বাড়ি,ভৈরবপুর,তালবাংরুয়া,ফতেপুর,প্রেমই প্রভৃতি গ্রামে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।পরপর তিনদিন ধরে এই কাজ চলছে,প্রতিদিন ৩০-৫০হাজার টাকার বাজেট আছে।

ত্রাণ মাথায় নিয়ে।

এই এলাকায় মালদা মেডিক্যাল কলেজের উদ্যোগে দুর্গত মানুষদের চিকিৎসার জন্য মেডিক্যাল ক্যাম্প করা হয়েছে বলে জানান মেডিক্যাল ছাত্র রবিউল ইসলাম।গতকাল দার্জিলিং গভমেন্ট কলেজের অধ্যাপক সামসুল হকের নেতৃত্বে বোরনাহি,টাংটাঘাট ও আশপাশের গ্রামে ত্রাণ বিলি করা হয়।চার কুইন্টাল চিড়া,সত্তর কেজি গুড়,পাঁচশো জলের বোতল,স্যানিটারি ন্যাপকিন দেওয়া হয়।এই ত্রাণ বিতরণ কাজে অংশ নেন বুধিয়া হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক আজিজুর রহমান,রাজনগর হাই স্কুলের শিক্ষক সামিউজ্জামান,ভালুকা আর.এম.এম.বিদ্যাপীঠ এর শিক্ষক হামিদুল ইসলাম,সেলিম আক্তার,আবদুল বারি প্রমুখ।এলাকার মানুষ প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন ত্রাণ বিতরণকারীদের সামনে।সামিউজ্জামান বলেন-দুর্গত মানুষজন ত্রাণ না পাওয়ায় প্রশাসনের প্রতি খুবই ক্ষুব্ধ।আমাদের কাছে তারা ত্রিপল দাবি করেন,খোলা আকাশের নিচে মানুষজনের দুর্বিসহ অবস্থা।প্রশাসনের পক্ষ থেকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ হোক।এলাকার জলবন্দি মানুষদের উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে আনা জরুরী।অবশ্য তৃণমূল জেলা সভাপতি ডাঃ মোয়াজ্জেম হোসেন জানান জেলা প্রশাসন কে দ্রুত ত্রাণ ও পুনর্বাসন কাজ করার জন্য আমরা অনুরোধ করেছি।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here