সৌগত শুভেন্দুর হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজের বিষয়বস্তু প্রকাশ্যে আসায় উঠছে প্রশ্ন

0
227

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতাঃ

মেসেজ ফাঁস-অবিশ্বাসের বাতাবরণ, নির্দিষ্ট পরিকল্পনার ইঙ্গিত? শুভেন্দু অধিকারীর হোয়াটসঅ্যাপের মেসেজ ফাঁস হয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করেই এখন রাজনৈতিক চাপান-উতোর শুরু হয়ে গিয়েছে।

Suvendu Saugata | newsfront.co
কোলাজ চিত্র

শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকের পর থেকে এখনও পর্যন্ত এবিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি বিতর্কিত তৃণমূল বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। তার মধ্যেই বৈঠকের খবর ও তাঁর হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা চলে এল প্রকাশ্যে। এই বিষয় নিয়ে ক্ষুব্ধ শুভেন্দু অনুগামীরা। দাদার অনুগামীদের দাবি, দাদা কিছুতেই ওই মেসেজ প্রকাশ করেননি, অর্থাৎ আবার তৈরি হল অবিশ্বাসের বাতাবরণ।

শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের তিন সাংসদ ও প্রশান্ত কিশোরের বৈঠকের খবর জানিয়েছিলেন সৌগত রায় তিনি যে ঐ বৈঠকে হাজির ছিলেন তাও বলেছিলেন সৌগতবাবু। যথেষ্ট আশাবাদী স্বরে তিনি জানান যে, শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে যে জটিলতা তৈরি হয়েছিল আলোচনার মধ্যে দিয়ে সেই জট কেটে গেছে।

আরও পড়ুনঃ একসঙ্গে কাজ করা মুশকিল, আমাকে মাফ করবেন! সৌগতকে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ শুভেন্দুর

তিনি বলেন যে, শুভেন্দু অধিকারী নিজেই সাংবাদিক বৈঠক করে সবটা জানিয়ে দেবেন। যদিও শুভেন্দু ওই বৈঠক সম্পর্কে কোথাও একটি শব্দও খরচ করেননি। বুধবার শুভেন্দু বাবুর হোয়াটসঅ্যাপের মেসেজ ফাঁস হয়, এই নিয়েই শুরু হয়ে গেল নতুন করে রাজনৈতিক চাপান-উতোর। অন্যদিকে পদ্ম শিবির নজরে রাখছে গোটা বিষয়টি।

এখন শুভেন্দু অনুগামীদের প্রশ্ন, দাদা যদি মেসেজ ফাঁস করে না থাকেন তাহলে অন্য কে সেই মেসেজ ফাঁস করলো? আদতে এর আড়ালে কে আছে তা নিয়ে ধন্দে দাদার অনুগামীরা। দাদার অনুগামীরা আবার নিজেদের পুরোনো অবস্থানেই ফিরতে চাইছেন।

আরও পড়ুনঃ বাংলার উন্নয়নে বাঙালিদের তুলনায় অবাঙালিদেরই অবদান বেশি- বেফাঁস দিলীপ

তাঁদের বক্তব্য, দুজন ব্যক্তির মধ্যে যদি মেসেজ চালাচালি তাহলে মেসেজের বিষয় ওই দুই ব্যক্তির মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকার কথা। তৃতীয় কোনো ব্যক্তি যদি এই মেসেজ সম্পর্কে জানতে পারেন তবেই তা বাইরে আসতে পারে কিন্তু এই ক্ষেত্রে মেসেজ ফাঁস হওয়ার দায় কেউ নেননি।

লক্ষ্যনীয় যে, শুভেন্দু অধিকারীর অরাজনৈতিক কর্মসূচি অব্যাহত থাকছে। এখন সকলেরই প্রশ্ন, তাহলে আলোচনায় জট কাটলো না? নাকি এর পিছনে অন্য কোনও পরিকল্পনা আছে? বাংলায় ভোটের ঘণ্টা বেজে গিয়েছে, সিদ্ধান্ত নিতে আরো দেরি হলে সমস্যায় পড়বেন দু’পক্ষই৷

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here