অনুব্রতকে সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করা হোক : রাহুল সিনহা

0
182

ভাস্কর ঘোষ, মুর্শিদাবাদ, ১৬ নভেম্বর :

“বুধবার বীরভূমের জেলা তৃনমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল যে ভাষায় কথা বলেছেন আমার মনে হয় এখনই ওঁকে সন্ত্রাসবাদী হিসাবে ঘোষণা করা হোক।এই জাতীয় হুমকির পরে কেউ স্বাভাবিক ভাবে ঘোরাফেরা করতে পারে না।অতি শিঘ্রই ওঁর জায়গা হওয়া উচিত জেলে।”-বৃহস্পতিবার মুর্শিদাবাদের বহরমপুরে দলের সংগঠনের কাজে এসে বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে এসে  সাংবাদিক সম্মেলনে এমনই দাবি করেন বিজেপি-র প্রক্তন রাজ্যসভাপতি তথা কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক রাহুল সিনহা। 

রাহুল বাবু আরও বলেন, গত কালের বীরভূমের ঘটনা আবার তৃনমূলের উগ্র রুপকে সামনে নিয়ে আসল।বোলপুর থানার শীবপুরে জমি দখলকে ঘিরে অনুব্রত মন্ডলের যে দৃশ্য সারা বাংলা দেখেছে, এখনই তাকে সন্ত্রাসবাদী হিসেবে ঘোষণা করার দাবি উঠেছেে। কারণ এই জাতীয় হুমকির পরে কোন নেতা স্বাভাবিকভাবে বাইরে ঘোরাফেরা করতে পারে না বলেও তার অভিযোগ। তিনি আরো বলেন যে মমতা ব্যানার্জির সরকার সেই সাহস দেখাতে পারবে কি না সেটাই কোটি টাকার প্রশ্ন।
পাশাপাশি পূর্বতন বাম সরকারের সঙ্গে তুলনা করে রাহুল সিনহা বলেন, যদিও বোলপুর থানার শীবপুরের চাষিদের জমি আন্দোলন নন্দীগ্রাম এবং সিঙ্গুরের স্মৃতিকে কিছুটা মনে করিয়ে দিচ্ছে। নন্দীগ্রাম ও সিঙ্গুরের চাষীদের কাছ থেকে জোর করে জমি নেওয়ার কারনে যেভাবে সিপিএমের পতন হয়েছিল, তা সিপিএমের শেষ লগ্নে শুরু হয়েছিল। তিনি আরো বলেন বীরভূমের এই জমি আন্দোলনকে ঘিরে চাষীদের আন্দোলনে তৃনমূল সরকারের শেষ কবরটা খোড়ার কাজটা শুরু করবে বলে  মনে হচ্ছে।
উল্লেখ্য, বোলপুর থানার শীবপুর এলাকায় কৃষিজমি রক্ষা কমিটির আন্দোলনকে ঘিরে তৃনমূল ও চাষীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এদিনের আন্দোলনে যোগ দিতে আসছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা কংগ্রেসের আব্দুল মান্নান ও সিপিএমের নেতা বিশিষ্ট আইনজীবি বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য। কিন্তু পুলিশ তাদের আগেই আটকে দেয়।
তৃনমূললের সঙ্গে সংঘর্ষকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবীতে পুলিশকে সময় বেঁধে দেন অনুব্রত বাবু। তিনি হুমকি দিয়ে বলেন -গ্রেপ্তার না হলে হাত পা ভেঙে দেব। ঘর বাড়ি জ্বালিয়ে দেব। কে আটকায় দেখব। ৭ টার মধ্যে গ্রেপ্তার না হলে, ৯ টায় আমার অন্য রুপ দেখবেন-এই জাতীয় মন্ততব্য।
বোলপুরে গীতাঞ্জলী আবাসন ও বিশ্ববাংলা বিশ্ববিদ্যালয় প্রকল্পের বিরোধিতা করেন করেন কিছু চাষী। এদিন বিক্ষুব্ধ চাষীদের সঙ্গে কথা বলতে আসছিলেন মান্নান বাবু ও বিকাশ রঞ্জন বাবুরা।তাঁদের জন্য তৈরী করা হয়েছিল মঞ্চ। কিন্তু, তৃনমূল তাঁদের মঞ্চ ভেঙে টেবিল চেয়ের ভেঙ্গে দিয়েছে বলে বিক্ষুব্ধ চাষীদের অভিযোগ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here