কুণালকে ‘পকেটমার’ কটাক্ষ শোভনের

0
49

উজ্জ্বল দত্ত, কলকাতাঃ

বৃহস্পতিবার রাজ্য বিজেপি দফতরে তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষকে বেনজির আক্রমণ করলেন বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়। ভারতীয় জনতা পার্টির কলকাতা জোনের নবনিযুক্ত পর্যবেক্ষক সরাসরি প্রশ্ন তুললেন ‘সাংবাদিক’ কুণাল ঘোষের যোগ্যতা নিয়ে ৷ তাঁর মতে, ‘কুণাল ঘোষের যোগ্যতা ছিল দালালির৷’

Sovon Chatterjee | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

সম্প্রতি কুণাল ঘোষ বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে চিটফান্ড কাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ তুলছেন৷ শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে এক চিটফান্ড কর্তার কিছু ছবি দেখিয়ে সরাসরি আক্রমণ করেছিলেন কুণাল৷

BJP Leader Sovon Chatterjee | newsfront.co
রাজ্য বিজেপি দফতরে সাংবাদিক বৈঠক সারছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। নিজস্ব চিত্র

সেই প্রসঙ্গে শোভন চট্টোপাধ্যায় পালটা প্রশ্ন তুলেছেন৷ তাঁর প্রশ্ন, চোদ্দ মাস আগে তিনি বিজেপিতে যোগদান করেছেন। অথচ কেন এতদিন পর তাঁর বিরুদ্ধে চিটফান্ডের অভিযোগ তোলা হচ্ছে?

শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য,চিটফান্ড কাণ্ডে জেল খেটেছেন কুণাল ঘোষ৷ সেই লোক কীভাবে অন্যের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তোলেন সেই প্রশ্ন তুলেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ এই প্রসঙ্গে তিনি ঘুরিয়ে কুণাল ঘোষকে ‘পকেটমার’ বলেও কটাক্ষ করেছেন৷

আরও পড়ুনঃ শনিবার রাজ্যে শুরু করোনার গণ টিকাকরণ কর্মসূচি, সূচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী

এদিকে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে পালটা আক্রমণ করেছেন কুণাল ঘোষ৷ তিনি বলেন, ‘‘শোভনের সঙ্গে মুখোমুখি বসতে চাই৷ গ্ল্যাকসো বেবি জানেন না আমাকে ক্লিনচিট দেওয়া হয়েছে৷ মুখ দেখাতে পারেন না বলে তিন বছর গর্তে ছিলেন৷’’

একই সঙ্গে কেডি সিংয়ের গ্রেফতারি নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের প্রশ্ন, তৃণমূল কেডি সিংকে আগেই বহিষ্কার করেনি কেন?

আরও পড়ুনঃ ভাইপোর বিয়েতে কী কেডি সিং উপস্থিত ছিলেন- প্রশ্ন সুজন চক্রবর্তীর

চোদ্দ মাস আগে বিজেপিতে যোগদান করলেও শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখি বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি বিজেপিতে পদ পেয়েছেন। শোভনকে বিজেপির কলকাতা জোনের পর্যবেক্ষক করা হয়েছে৷ আর বৈশাখি ওই জোনের সহ-আহ্বায়ক৷ তার পর কিঞ্চিৎ টানাপোড়েন শেষে বিজেপির হয়ে সক্রিয় হয়েছেন শোভন-বৈশাখি৷ এদিনই তাঁরা প্রথমবার বিজেপির রাজ্য সদর দফতরে যান৷ সেখানে সাংবাদিক বৈঠক থেকেই কুণালের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন শোভন চট্টোপাধ্যায়৷

তবে তাঁর আগে তিনি দলের একাধিক কর্মসূচির ঘোষণা করেন। যার মধ্যে অন্যতম কলকাতায় সমাধান কর্মসূচি ৷ তাঁর দাবি, মানুষ তৃণমূলকে পরিত্যাগ করেছে। এবার বিজেপির দায়িত্ব মানুষের সেই রায়কে ব্যালট বাক্স পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়া।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here