নেতাদের মাত্রাতিরিক্ত সম্পত্তি বৃদ্ধি গণতন্ত্র ধ্বংসের নিশ্চিত ইঙ্গিতঃস্মরণ করিয়ে সুপ্রিম কোর্টের কৈফিয়ত তলব

0
350

ওয়েবডেস্কঃ

এম পি ,এমএলএ’দের মাত্রাতিরিক্ত সম্পত্তি নিয়ন্ত্রণে কেন কেন্দ্র কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি ? তার জবাব চাইল সুপ্রিম কোর্ট।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্র সরকারকে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে জবাবদিহি করতে বললো  কেন গত বছরের নির্দেশ সত্ত্বেও কেন্দ্র সরকার নির্বাচিত প্রতিনিধিদের মাত্রাতিরিক্ত সম্পত্তির নজরদারির কোন স্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি ।

উল্লেখ্য গত বছরের ১৬ ই ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্ট উল্লেখ করে যে আইন প্রণেতাদের মাত্রাতিরিক্ত সম্পত্তি বৃদ্ধি গণতন্ত্র ধ্বংসের নিশ্চিত ইঙ্গিত বহন করে । আর যদি এই ব্যাপারে কোন নজর না দেয়া হয় তাহলে তা গণতন্ত্র ধ্বংস করে মাফিয়াবাদের শাসনের পথ প্রশস্ত করবে ।

আর এই মর্মে সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্রকে নির্দেশ দিয়েছিল নির্বাচিত প্রতিনিধিদের মাত্রাতিরিক্ত সম্পত্তি বৃদ্ধির নিয়ন্ত্রণ করতে একটি স্থায়ী কমিটি গঠন করা জরুরি ।

মঙ্গলবার এনজিও ‘লোক প্রহরী’ কর্তৃক মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট জানায় শীর্ষ আদালত কোন নোটিশ জারি করেনি তবে বিধানসভার সচিবকে সম্পত্তি নিয়ন্ত্রণের  ব্যাপারে স্থায়ী কমিটি কেন করা হয়নি তার প্রত্যুত্তর চাওয়া হয়েছিল ।

এদিন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি দীপক গুপ্ত ও বিচারপতি সঞ্জীব খান্নার বেঞ্চ এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সচিবকে ফর্ম ২৬ (যা প্রতিটি প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়ার সময় পূরণ করতে হয় ), যেখানে আরপি আইনের অধীনে নির্বাচিত প্রার্থীর কোন অযোগ্যতা আছে কিনা সে বিষয়ে কেন কোন অনুসন্ধান নেই তার ব্যাখ্যা দিতে বলেন ।

আরও পড়ুনঃকংগ্রেসে যোগদান করলেন হার্দিক প্যাটেল

ঐ এনজিও এর সচিব এন এ শুক্লা জানান এম পি , এমএলএ ও কাউন্সিলরদের মাত্রাতিরিক্ত সম্পত্তির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণের স্থায়ী কোনও ব্যাবস্থা নেয়নি কেন্দ্র ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here