মধ্যপ্রদেশে চোর সন্দেহে ট্রাকের সঙ্গে বেঁধে নৃশংস অত্যাচার করে খুনের অভিযোগ, ধৃত ৫

0
17

মোহনা বিশ্বাস, ওয়েব ডেস্কঃ

যুগ পাল্টালেও মনুষ্যত্ব, মানবিকতা আর সর্বোপরি মানুষের চিন্তাভাবনার কোনও পরিবর্তন এখনও হয়নি। আর তাই আজও মধ্যযুগীয় বর্বরতার স্বীকার হতে হয় সমাজে দলিত মানুষদের। এমনই এক অমানবিক ঘটনার সাক্ষী থাকল মধ্যপ্রদেশ। চোর সন্দেহে এক আদিবাসী ব্যক্তিকে প্রথম বেধড়ক মারধর এবং পরে ট্রাকের সঙ্গে বেঁধে টেনে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগও উঠল।

Madhyapradesh
সৌজন্যেঃ এনডিটিভি

ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের নিমাচ জেলায়। ঘটনায় গুরুতর জখম হয়ে মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির। এই ঘটনায় মোট ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। এর মধ্যে খুনের অভিযোগে ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মৃত ব্যক্তির নাম কানহাইয়া ভীল। বয়স ৪১ বছর। অভিযোগ, চোর সন্দেহে ওই ব্যক্তির উপর চড়াও হয় একদল লোক। এরপরই ওই আদিবাসী ব্যক্তিকে বেধড়ক মরধর করে এবং পরে ট্রাকের সঙ্গে বেঁধে টেনে নিয়ে যায় তারা। ছিঁড়ে যায় জামা-কাপড়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। এরপরই ওই আহত আদিবাসী ব্যাক্তিকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যান পুলিশকর্মীরা। সেখান থেকে তাঁকে নিমাচ জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। কিন্তু সেখানে নিয়ে যাওয়ার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুনঃ ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’-এর পোস্টারে বাদ নেহেরু, বিতর্কিত কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত

এই অমানবিক অত্যাচারের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। সেই ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে যে, তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য কাতর আর্জি জানাচ্ছেন কানহাইয়া। কিন্তু একদল লোক তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার বদলে বেধড়ক মারধর করছে। এরপর পায়ে দড়ি বেঁধে ট্রাকের সঙ্গে টেনে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এই দৃশ্য দেখে রীতিমতো শিউরে ওঠে নেটদুনিয়া। পুলিশ সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবারই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয় এই নৃশংস ঘটনার ভিডিও। এরপরই অভিযুক্তদের দাবিতে সরব হয়েছেন অনেকেই।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here